রাষ্ট্রপতির সঙ্গে দুই মন্ত্রীসহ প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ; ষোড়শ সংশোধনীর রায় নিয়ে আলোচনা


ন্যাশনাল ডেস্ক : রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের সঙ্গে বঙ্গভবনে সাক্ষাৎ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বুধবার রাতে এই সাক্ষাৎ হয়। তাঁদের এই সাক্ষাতের পর আরেকটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এতে যোগ দেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, আইনমন্ত্রী আনিসুল হক এবং অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।
সেখানে সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণার রায় নিয়ে আলোচনা হয়েছে বলে বৈঠক সূত্রে জানা গেছে। তবে আলোচনার বিষয়বস্তু কেউ সুনির্দিষ্টভাবে বলেননি।
সাক্ষাৎ শেষে বুধবার রাত সোয়া ১০টার দিকে বঙ্গভবন থেকে বেরিয়ে আসার পর ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন, রায়ের বিষয়েও আলোচনা হয়েছে। তবে তিনি বিস্তারিত কিছু বলেননি। বন্যা পরিস্থিতি এবং ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু ভবনে জঙ্গি হামলার চক্রান্ত নিয়ে আলোচনা করেন বলেও জানান ওবায়দুল কাদের।
বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, রাষ্ট্রপতির সঙ্গে ষোড়শ সংশোধনী নিয়েও কথাবার্তা হয়েছে। তবে সেই কথাবার্তা কী, সেটা সুনির্দিষ্টভাবে কেউ নিশ্চিত করেননি। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একটি সূত্র জানায়, ষোড়শ সংশোধনী ছাড়াও দুটি বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে। আইন ও বিচার বিভাগের সচিব আবু সালেহ শেখ মো. জহিরুল হকের চুক্তিভিত্তিক নিয়োগের বৈধতা নিয়ে রিটের পরিপ্রেক্ষিতে হওয়া রুল শুনানির জন্য হাইকোর্টে বৃহস্পতিবার দিন ধার্য রয়েছে। এ ছাড়া আগামী সপ্তাহে অধস্তন আদালতের চাকরির শৃঙ্খলা-সংক্রান্ত বিধিমালা চূড়ান্ত করার বিষয়ে শুনানির জন্য রয়েছে। এসব বিষয় আলোচনায় আসে।
জানতে চাইলে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বুধবার রাতে বলেন, সৌজন্য সাক্ষাতে বন্যাসহ অন্যান্য বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে। ষোড়শ সংশোধনী নিয়ে আলোচনা হয়েছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, অনেক বিষয় নিয়েই আলোচনা হয়েছে।
জানতে চাইলে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, এটা ছিল সৌজন্য সাক্ষাৎ। এর বাইরে তিনি কিছু বলতে চাননি।
এদিকে সরকারি বার্তা সংস্থা বাসস রাষ্ট্রপতির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর বৈঠক সম্পর্কে জানিয়েছে, প্রধানমন্ত্রী বন্যা পরিস্থিতিসহ দেশের সার্বিক পরিস্থিতি রাষ্ট্রপতিকে অবহিত করেন। শেখ হাসিনা বলেন, বন্যা পরিস্থিতি মোকাবিলায় সরকার সর্বাত্মক পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। দেশে পর্যাপ্ত খাদ্যশস্যের মজুত রয়েছে। প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত জনগণের সহায়তায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের ইতিমধ্যে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।
জানতে চাইলে রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব জয়নাল আবেদীন বলেন, রাষ্ট্রপতির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর বৈঠকে রাষ্ট্রপতি বন্যায় মানুষের কষ্ট লাঘবে প্রশাসনের পাশাপাশি জনপ্রতিনিধিদের বন্যাপীড়িত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন। ত্রাণসামগ্রী যাতে প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিদের কাছে পৌঁছায়, তা নিশ্চিত করতেও রাষ্ট্রপতি আহ্বান জানিয়েছেন।
১ আগস্ট সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণা করে দেওয়া পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশিত হয়। এরপর থেকেই এই রায় ও রায়ের পর্যবেক্ষণ নিয়ে রাজনৈতিক অঙ্গন সরগরম হয়ে ওঠে। বিশেষ করে রায়ের কিছু পর্যবেক্ষণ নিয়ে ক্ষমতাসীন দলের নেতা-কর্মীরা ক্ষুব্ধ হন। বিষয়টি নিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এর আগে রাষ্ট্রপতি ও প্রধান বিচারপতির সঙ্গে দেখা করে এ বিষয়ে দলের অবস্থান তুলে ধরেন। এমন প্রেক্ষাপটে এই সাক্ষাৎ নিয়ে রাজনৈতিক অঙ্গনে আবার আলোচনা শুরু হয়েছে।
সূত্র : প্রথম আলো।

Related posts