কফি চুরি করে খেয়ে বেহুঁশ বানর!


পর্যটকের কফি চুরি করে খেয়ে বেহুঁশ হয়েছে বানর। এমন ঘটনাই ঘটল থাইল্যান্ডের এক পর্যটন কেন্দ্রে।
মূলত বাঁদরামি করতে গিয়েই এমন দশার ম্যাকাকিউ প্রজাতির ওই বানরের।

ম্যাকাকিউ প্রজাতির বানর একটু বেশিই দুষ্টু প্রকৃতির। এই বানর সারাক্ষণ দুষ্টুমিতে মেতে থাকে। থাইল্যান্ডের রাজধানী ব্যাংককের পর্যটনকেন্দ্র কিংবা রাস্তাঘাটে রয়েছে এদের বিচরণ। কখনো এরা পর্যটকদের সাথে স্বভাবসুলভ দুষ্টুমিতে মেতে ওঠে, আবার কখনো খাবার চুরি করে খেয়ে ফেলে। অবশ্য এ নিয়ে বেড়াতে আসা পর্যটকেরা কোনো অভিযোগ করে না বরং তারা মজাই পায়।

সম্প্রতি একটি ম্যাকাকিউ বানরের শাবক একজন পর্যটকের কফির কাপে লুকিয়ে চুমুক দেয়। বিপত্তির শুরু এখান থেকেই। কারণ সেই কফি পান করার পর বানরটি বেহুঁশ হয়ে পড়ে।
সঙ্গে সঙ্গে পশু চিকিৎসককে খবর দেওয়া হয়। তারা এসে বানরটির চিকিৎসা করেন এবং প্রায় দশ ঘণ্টা পর বানরটির জ্ঞান ফিরে আসে।

এমন ঘটনায় অবাক হয়ে যায় সবাই। কারণ কফিতে চুমুক দিয়ে একটি বানর কেন দশ ঘণ্টা বেহুঁশ হয়ে থাকবে? তবে সকলের এই প্রশ্নের উত্তর মিলেছে চিকিৎসকদের পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর। চিকিৎসকরা দেখতে পান কফিতে তীব্র ক্যাফেইন মেশানো ছিল। এ কারণেই বানরটি জ্ঞান হারিয়েছে।

ঘটনাটি খুব সামান্য হলেও এর প্রভাব বেশ জোরালো হয়েছে। কারণ ইতোমধ্যে পর্যটকদের খাদ্য বা পানীয় যেখানে-সেখানে রাখার ব্যাপারে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে। এছাড়া পশুপ্রেমী সংগঠনগুলো আরো কঠোর নিয়ম-নীতি প্রণয়নের দাবি জানিয়েছে।

Related posts