দূর সীমানার সেতারে


সৌহার্দ সিরাজ
দূর সীমানার সেতারে

পাখির কাছে ঋণী আমি নদীর কাছেও ঋণী
তোমরা কী দেবে দাও,
নিলামে কেনা হে ভালোবাসা
আমি হাত পেতে আছি, কী দেবে দাও
পৃথিবীর অজস্র রৌদ্র ও রাত্রির মুক্তি আমি চাই।

মনে রেখ মানচিত্র রঙিন হলেও
মাটির গন্ধ পাওয়াটা অনেক কঠিন
সত্যশুদ্ধ আলিঙ্গন কখনো হৃদয়ের সহানুভূতি
ছাড়া হয় না বলে আমি সহজে লিখে যেতে পারি
অরণ্য আর সমুদ্রের কোলে বেড়ে ওঠা সন্ধ্যার মৌন গান।
সেই সব সবুজ গানে আমি আমার কষ্ট ওড়াই
শাদা শাদা মেঘ ভেসে যায় হাওয়ার ডানায়
আঁকা-বাঁকা স্বপ্ন ঘুরাই প্রশ্নের জটিল চাকায়।

তা হোক তোমরা কী দেবে দাও,
রাশি রাশি ফুল, ফাঁদ
মৃত্যু অবধি প্রতারণা কিংবা সরল জোনাকী পথ
আমি চোখ মেলে আছি, বুক পেতে আছি
মূর্তিমান নিসর্গের ভাঁজে ভাঁজে দূর সীমানার সেতারে
জড়িয়ে আছি একাকীত্বের নিবিড় নিমগ্নতায়
তোমরা যা দেবে দাও
আমি হাত পেতে আছি।

 

কাগজের ফুল ওড়ে

পাখিরা পালায় দূর্গন্ধময় এই জনভূম ছেড়ে
সমতলের সবুজ বাগান
আলু থালু কাটায় রাত হাসপাতালে,
তাই বুঝি মরুভূমির উটযাত্রা
হেঁকে ওঠে মহল্লার মোহনায়
মানচিত্র বিষয়ক নোংরাজলে
বিদ্যাপতির নৌকা ডুবে যায়।

অথচ এই রৌদ্দুর সাজাতে কত শ্রাবণ ও সৌন্দর্য
নদীর ভেঙে পড়া ঢেউ স্বর্ণচাপা সম্পর্ক করেছ বিক্রি
বইয়ের ভাঁজে ভাঁজে তুমি
আঁধার রাতের বংশীবাদক
ছড়িয়েছ মনুষ্যত্ব প্রতিষ্ঠার কালান্তর আবেদন,
অথচ কী সুশোভন বৈধব্য এখন
দিনের স্রোতে আমাদের দিনান্তর,
আমরা দেখছি ঈশ্বর নির্বাক, মধ্যপন্থীরা লজ্জাবান
আর তোমার জন্ম উৎসবে নষ্ট প্রেমিকের
কাগজের ফুল ওড়ে।

Related posts

Leave a Comment