মোবাইলে প্রেম, প্রেমিককে বাসায় ডেকে অজ্ঞান করলো প্রেমিকা


ভিন্ন স্বাদের খবর: মোবাইলে প্রেমের সম্পর্কের সূত্র ধরে এক প্রেমিককে বাসায় ডেকে অজ্ঞান করে বেঁধে রাখলেন প্রেমিকা। মেহেরপুরের মুজিবনগর উপজেলার বাগোয়ান গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

সোমবার দুপুরে প্রেমিক ওয়াজেল হোসেনকে অজ্ঞান অবস্থায় প্রেমিকা সাথী আক্তার শেফার বাড়ি থেকে উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় প্রেমিকা সাথী আক্তার শেফাকে (২৫) আটক করা হয়েছে। উদ্ধার ওয়াজেল হোসেনের বাড়ি কুষ্টিয়ার দৌলতপুর থানার ধর্মদা গ্রামে।

মেহেরপুরের সহকারী পুলিশ সুপার শেখ মোস্তাফিজুর রহমান জানান, চারদিন আগে চুয়াডাঙ্গার দর্শনা চেকপোস্টে ব্যবসায়ী ওয়াজেলের সঙ্গে পরিচয় হয় সাথী আক্তার শেফার। সেখানে মুঠোফোন নম্বর আদান-প্রদান করেন তারা। পরে মুঠোফোনে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

রোববার সকালে প্রেমিককে বাসায় ডাকেন প্রেমিকা সাথী। প্রেমিকার ডাকে সাড়া দিয়ে দুপুরে দেখা করতে যান ওয়াজেল। সেখানে গেলে প্রেমিককে একটি ঘরে আটকে রাখেন প্রেমিকা। সেই সঙ্গে বিভিন্ন ওষুধ খাইয়ে তাকে অজ্ঞান করে রাখা হয়। এরপর মুঠোফোনে ওয়াজেলের স্ত্রীর কাছে ২৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন সাথী।

সহকারী পুলিশ সুপার শেখ মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, সোমবার দুপুরে জ্ঞান ফিরলে ওয়াজেল চিৎকার শুরু করে। তার চিৎকার শুনে পুলিশে খবর দেয় স্থানীয়রা।

পরে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে। তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এ ঘটনায় সাথী আক্তার শেফাকে আটক করা হয়েছে। এর সঙ্গে কারা জড়িত তাদের চিহ্নিত করে আটকের চেষ্টা চলছে। সেই সঙ্গে সাথীর নামে অপহরণ ও চাঁদাবাজি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান সহকারী পুলিশ সুপার।

Related posts

Leave a Comment