এবার টাইগারদের টেস্ট পরীক্ষা

জানু. ১২, ২০১৭ ২:১৬ পূর্বাহ্ন

1812397b8ce38726590d90cda5777302-587657173e242নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচটি বাংলাদেশ সময় আজ বৃহস্পতিবার ভোর ৪টায় শুরু হবে। ম্যাচটি সরাসরি দেখা যাবে বিটিভি ও চ্যানেল নাইনে।

বাতাসের শহর হিসেবে ‘খ্যাতি’ আছে ওয়েলিংটনের। সেই শহরেই বাংলাদেশের প্রথম টেস্ট ভেন্যু বেসিন রিজার্ভ স্টেডিয়াম। যেটি আবার সাগরের খুব কাছে। অবস্থানগত কারণে বাতাসের গতিটা এখানে একটু বেশিই।

শুধু কী তাই, বেসিন রিজার্ভ পার্কের সবুজ চত্তরে আছে বিশ্বের অন্যতম বাউন্সি উইকেটও। এখানে বাংলাদেশের জন্য অপেক্ষা করছে বড় ধরনের চ্যালেঞ্জ। কিউই পেসারদের সুইং-বাউন্স চোখ যে রাঙাচ্ছে টাইগাদের।

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচটি বাংলাদেশ সময় বৃহস্পতিবার ভোর ৪টায় শুরু হবে। ম্যাচটি সরাসরি দেখা যাবে বিটিভি ও চ্যানেল নাইনে।

নিউজিল্যান্ড সফরে গিয়ে এখন পর্যন্ত কোনও সাফল্য পায়নি বাংলাদেশ। মাশরাফির নেতৃত্বে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজে পুরোপুরি ব্যর্থ হয়েছে অনেক স্বপ্ন নিয়ে যাওয়া লাল-সবুজরা। সীমিত ওভারের পরীক্ষা্য় ব্যর্থ হওয়ার পর এখন টাইগারদের সামনে টেস্ট পরীক্ষা।

মাশরাফির ব্যর্থতার পর মুশফিকের কিছু করে দেখানোর সুযোগ! তবে সীমিত ওভারের চেয়ে অনেকে বেশি পিছিয়ে থাকা বাংলাদেশের জন্য এটা আরও বেশি কঠিন।

বাংলাদেশের জন্য চ্যালেঞ্জটা কঠিন ভিন্ন কারণে। একে তো বাংলাদেশ টেস্ট ম্যাচ কম খেলে, তার ওপর দেশের বাইরে একদমই সুযোগ পায় না। এই যেমন বাংলাদেশের বিদেশের মাটিতে সর্বশেষ টেস্ট খেলার অভিজ্ঞতাটা প্রায় আড়াই বছর আগে! ২০১৪ সালের সেপ্টেম্বরে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে গিয়েছিল বাংলাদেশ। এর পর বিদেশের মাটিতে আর কোনও টেস্ট খেলেনি তারা। এই অবস্থায় এতদিন পর বিদেশের মাটিতে ভালো খেলাটা বাড়তি একটা চ্যালেঞ্জ হিসেবেই আসছে মুশফিকেদের সামনে। মুশফিক তার সতীর্থদের নিয়ে এই চ্যালেঞ্জ কতটা টপকাতে পারবেন, এটাই দেখার বিষয়।

এখন পর্যন্ত নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ৬টি টেস্ট সিরিজ খেলেছে বাংলাদেশ। ২০১৩ সালে সর্বশেষ দুই দলের টেস্ট সিরিজ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বাংলাদেশের মাটিতে হওয়া সেই দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে ড্র করেছে বাংলাদেশ। নিউজিল্যান্ডকে একটি টেস্টেও জিততে দেয়নি।

এদিকে নিউজিল্যান্ডের মাটিতে সর্বশেষ ২০১০ সালে টেস্ট সিরিজ খেলেছিল বাংলাদেশ। একমাত্র টেস্টটি হারে বাংলাদেশ। ২০০১ ও ২০০৮ সালেও একই দশা হয়। দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে হারে বাংলাদেশ। নিউজিল্যান্ডের মাটিতে হওয়া প্রতিটি টেস্ট সিরিজেই বড় ব্যবধানে হারতে হয়েছে টাইগারদের।

অন্যদিকে নিউজিল্যান্ডের মাটিতে ৫টি টেস্ট খেলে তিনটিতেই ইনিংস ব্যবধানে হারে সাকিব-তামিমরা। সবমিলিয়ে বাংলাদেশের বিপক্ষে এখন পর্যন্ত ১১বারের দেখায় ৮ ম্যাচে জয় পেয়েছে কিউইরা। বাকি তিন ম্যাচ ড্র।

এদিকে মুশফিক-তামিম-ইমরুলকে নিয়ে দুশ্চিন্তা কেটেছে বাংলাদেশ শিবিরে। প্রথম টেস্টের আগে বেসিন রিজার্ভে অনুশীলনে করেছেন তারা। সিরিজের শেষ টি-টোয়েন্টিতে ম্যাচে ফিল্ডিংয়ের সময় তামিম ইকবাল হাতে ও ইমরুল কায়েস হাঁটুতে চোট পেয়েছিলেন। ৪৮ ঘন্টা পর্যবেক্ষণে থাকার পর তাদের নিয়ে শঙ্কা প্রায় কেটে গেছে। রোমাঞ্চটা সবচেয়ে বেশি সম্ভবত তাসকিন আহমেদের। সব ঠিক থাকলে যে ওয়েলিংটনেই ২১ বছর বয়সী এই পেসারের টেস্ট অভিষেক হয়ে যাচ্ছে!


Leave a Reply