আবরার হত্যার প্রথম স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি সকালের

দেশের খবর: বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যা মামলার আসামিদের মধ্যে প্রথম স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন ইফতি মোশাররফ সকাল। তিনি বুয়েটের বায়ো মেডিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের তৃতীয় বর্ষের এই ছাত্র এবং বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের উপ-সমাজসেবা সম্পাদক ছিলেন।

বৃহস্পতিবার বিকেলে ইফতি মোশাররফ সকালকে মহানগর হাকিম সাদবির ইয়াসির আহসান চৌধুরী আদালতে নিয়ে যান মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক মো. ওয়াহিদুজ্জামান। সেখানে ১৬৪ ধারায় তার জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়। জবানবন্দী নেওয়ার পর সকালকে কেরাণীগঞ্জ কেন্দ্রীয় কারাগারে প্রেরণ করার নির্দেশ দেন বিচারক।

জবানবন্দি রেকর্ডের আগে আদালতে দেওয়া তদন্ত কর্মকর্তার প্রতিবেদনে বলা হয়, রিমান্ডে সকাল স্বীকার করেছে যে ছাত্রলীগের অন্যদের সঙ্গে সে আবরারকে প্রহার করেছে যাতে তার মৃত্যু হয় এবং তিনি স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিতে চান।
উল্লেখ্য, রবিবার মধ্যরাতে ফাহাদকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শেরেবাংলা হলের দ্বিতীয় তলা থেকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় আবরারের বাবা বরকত উল্লাহ বাদী হয়ে রাজধানীর চকবাজার থানায় ১৯ জনের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

Related posts