দেবহাটায় স্কুল ছাত্রী গণধর্ষনের অভিযোগে আটক-২

দেবহাটা ব্যুরো : দেবহাটায় দশম শ্রেণিতে পড়ুয়া এক স্কুল ছাত্রীকে ফুসলিয়ে গণধর্ষনের অভিযোগে দেবহাটা থানায় মামলা হয়েছে। মামলার বাদী হয়েছেন ওই স্কুল ছাত্রীর মা। এ ঘটনায় পুলিশ অভিযুক্ত ২ আসামীকে গ্রেফতার করেছে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা দেবহাটা থানার ওসি (তদন্ত) উজ্জ্বল কুমার মৈত্র জানান, গত ১২ অক্টোবর সকাল ১১ টার দিকে দেবহাটা উপজেলার বহেরা এটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনীর ছাত্রীকে বহেরা বাজার এলাকা থেকে উপজেলার গোবরাখালী গ্রামের আশরাফুল ইসলামের ছেলে সুফিয়ান (২৮) ও একই গ্রামের মোশারফ মাস্টারের ছেলে জিল্লুর রহমান (২৭) সহ ৪ জন মিলে ফুসলিয়ে গোবরাখালী গ্রামে সুফিয়ানের বাড়িতে নিয়ে যায়। সেখানে নিয়ে মেয়েটিকে বিভিন্ন প্রলোভনে গণধর্ষন করে। পরে তারা মেয়েটিকে কাউকে কাউকে কিছু জানানোর ভয়ভীতি দেখিয়ে বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়। মেয়েটি বাড়িতে ঘটনা সম্পর্কে তার পরিবারকে জানালে মেয়েটির মা বাদী হয়ে দেবহাটা থানায় মামলা দায়ের করে। মামলা নং- ০৭, তাং- ১৪-১০-১৯ ইং। পরে দেবহাটা থানার ওসি (তদন্ত) উজ্জ্বল কুমার মৈত্র সঙ্গীয় এএসআই রশিদুল আলম ও এএসআই সুজিত কুমারসহ সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে সোমবার দুপুর ১ টার দিকে মামলার এজাহারনামীয় আসামী সুফিয়ান ও জিল্লুরকে গ্রেফতার করেন। দেবহাটা থানার ওসি বিপ্লব কুমার সাহা গণধর্ষনের ঘটনায় থানায় মামলা হওয়ার বিষয়টি স্বীকার করে জানান, ঘটনাটিকে গুরুত্ব দিয়ে পুলিশ তদন্ত করছে। মামলার ২ আসামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং বাকী আসামীদেরকে গ্রেফতারে পুলিশী অভিযান অব্যাহত আছে।

Related posts