সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজে যন্ত্রপাতি ক্রয়ে অনিয়মের মামলায় দুই আসামীর জামিন না মঞ্জুর

আসাদুজ্জামান ঃ সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সফটওয়্যারসহ মেশিনারীজ ও যন্ত্রপাতি ক্রয়ের নামে ভুয়া বিল ভাউসার দিয়ে পরস্পরের যোগসাজশে সরকারের কাছ থেকে ৬ কোটি ৬ লাখ ৯৯ টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগে দুদকের দায়ের করা মামলায় দুই আসামীর জামিন আবেদন না-মঞ্জুর করে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। বুধবার সাতক্ষীরার সিনিয়র স্পেশাল জজ-১ এর ভারপ্রাপ্ত বিচারক মোঃ শরিফুল ইসলাম এ আদেশ দেন।
জামিন না-মঞ্জুর হওয়া আসামীরা হলেন, ঢাকাস্থ পুরানোপল্টন এলাকার মেসার্স মার্কেন্টাইল ট্রেড ইণ্টারন্যাশনালের স্বত্বাধিকারী আব্দুস সাত্তার সরকার ও দিনাজপুরের ইউনিভার্সাল ট্রেড কর্পোরেশনের স্বত্বাধিকারী আসাদুর রহমান।
এর আগে গত ৩১ অক্টোবর দুদক প্রধান কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মো. ফেরদৌস রহমান বাদী হয়ে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সাবেক ত্বাবধায়ক ডা. শাহজাহান আলীকে প্রধান আসামী করে ৫ জনের বিরুদ্ধে দুদক খুলনা কার্যালয়ে এ মামলটি দায়ের করেন। মামলা নং-৯।
এ মামলার অপর আসামিরা হলেন, ঢাকাস্থ পুরানোপল্টন এলাকার মেসার্স মার্কেন্টাইল ট্রেড ইণ্টারন্যাশনালের স্বত্বাধিকারী আব্দুস সাত্তার সরকার, ঢাকার সেগুনবাগিচার মেসার্স মার্কেন্টাইল ট্রেড ইণ্টারন্যাশনালের স্বত্বাধিকারী আহসান হাবীব, ঢাকার বেঙ্গল সাইন্টিফিক এন্ড সার্জিক্যাল কোম্পানীর স্বত্বাধিকারী জাহের উদ্দীন সরকার ও দিনাজপুরের ইউনিভার্সাল ট্রেড কর্পোরেশনের স্বত্বাধিকারী আসাদুর রহমান।
মামলার এজাহার নামীয় ২ নম্বর আসামী ঢাকাস্থ পুরানোপল্টন এলাকার মেসার্স মার্কেন্টাইল ট্রেড ইণ্টারন্যাশনালের স্বত্বাধিকারী আব্দুস সাত্তার সরকার ও এজাহার নামীয় ৫ নম্বর আসামী দিনাজপুরের ইউনিভার্সাল ট্রেড কর্পোরেশনের স্বত্বাধিকারী আসাদুর রহমান স্বেচ্ছায় উক্ত আদালতে হাজির হয়ে জামিনের আবেদন করলে বিচারক তা না-মঞ্জুর করেন এবং আসামীদেরকে জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন। রাষ্ট্রপক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন, দুদক সাতক্ষীরার পিপি এড, মোস্তফা আসাদুজ্জামান দিলু।

Related posts