সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা: রুহুল হকের বিরুদ্ধে অপপ্রচারের প্রতিবাদে সাতক্ষীরায় হাজারো জনতার বিক্ষোভ সমাবেশ


নিজস্ব প্রতিবেদক:
ঢাকা প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধনের নামে নন্দিত জননেতা, সাতক্ষীরাবাসীর গর্ব, সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা: আফম রুহুল হকের বিরুদ্ধে কুরুচিপূর্ণ, কাপুরুষিত মিথ্যাচারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সকাল থেকে জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে সাতক্ষীরাবাসীর প্রাণ,হৃদয়ের স্পন্দন ডা: আফম রুহুল এমপির বিরুদ্ধে অপপ্রচারের প্রতিবাদ জানাতে খন্ড খন্ড মিছিল সহকারে সাতক্ষীরা শহিদ আলাউদ্দিন চত্বরে হাজির হতে থাকেন। হাজার হাজার নেতাকর্মীদের উপস্থিতিতে ২ ঘণ্টার জন্য প্রায় অচল হয়ে পড়ে সাতক্ষীরা শহর। নেতাকর্মীরা তাদের প্রিয় নেতার বিরুদ্ধে কুরুচিপূর্ণ মিথ্যাচারের প্রতিবাদে ক্ষোভে ফেটে পড়েন।
সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, মহিলা আওয়ামীলীগ, ছাত্রলীগসহ সকল অঙ্গসহযোগী সংগঠনের আয়োজনে রোববার সকাল ১১টায় অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ সমাবেশে সাতক্ষীরা পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি মোহাম্মদ আবু সায়ীদের সভাপতিত্বে ও পৌর আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রাশেদুজ্জামান রাশির পরিচালনায় প্রধান অতিথি ছিলেন সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ নজরুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন, সাবেক সাংসদ ডাঃ মোখলেছুর রহমান, জেলা আওয়ামীলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক ও জজ কোর্টের পিপি এড. ওসমান গনি, সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি শওকত হোসেন, সাধারণ সম্পাদক শাহাজাহান আলী, জেলা যুবলীগের সভাপতি আব্দুল মান্নান, সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আঃ রশিদ, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের সদস্য সচিব লায়লা পারভীন সেঁজুতি, সখিপুর ইউপি চেয়ারম্যান ফারুক হোসেন রতন, নওয়াপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান ও দেবহাটা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মুজিবুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনি, প্রতাপনগর ইউপি চেয়ারম্যান জাকির হোসেন, খাজরা ইউপি চেয়ারম্যান শাহনেওয়াজ ডালিম, আনুলিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আলমগীর আলম লিটন, পারুলিয়া ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম,পৌর আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক খন্দকার আরিফ হাসান প্রিন্স, আঃ রশিদ, সদস্য সবুর খান, আঃ মুজিদ, নূর মনোয়ার, জেলা মহিলা আওয়ামীলীগ নেত্রী রওশন আরা রুবি প্রমুখ।
বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তারা বলেন, যিনি সাতক্ষীরার চিহ্নিত ভূমিদস্যু হিসাবে পরিচিত। ইতোপূর্বে কখনো আওয়ামীলীগের সাথে কোন সম্পৃক্ততা ছিলো না। বিগত সময়ে যিনি তারেক জিয়ার ঘনিষ্টজন হিসাবে পরিচিত ছিলেন। তিনি নাকি আবার নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করবেন। শুধু ব্যবসা করে টাকা মালিক হলেই নৌকা পাওয়া যাবে না। জননেত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, জনগন প্রিয় ব্যক্তিকে মনোনয়ন দেওয়া হবে। কোন হাইব্রিড কে মনোনয়ন দেবেন না। যাকে বাদ দিয়ে সাতক্ষীরার উন্নয়নকে কল্পনা করা যায় না। তিনি হলেন সাতক্ষীরাবাসীর গর্ব ডা: আফম রুহুল হক। তিনি বিশ্ব বিখ্যাত চিকিৎসক। তার জন্যই আমরা সাতক্ষীরায় মেডিকেল কলেজ পেয়েছি। বাইপাস সড়ক পেয়েছি। আশাশুনিতে বাইপাসসড়ক হয়েছে। তিনি সাতক্ষীরাবাসীর প্রাণের স্পন্দন। তার বিরুদ্ধে কোন ষড়যন্ত্র সাতক্ষীরাবাসী মেনে নেবে না। যারা কালো টাকার প্রভাবে ডা: রুহুল হকের বিরুদ্ধে অপপ্রচার করে, তাঁর সম্মান হানিকরে হাস্যকর মানববন্ধন ও মিথ্যা বক্তব্য উপস্থাপন করে তারা আর যাই হোক সাতক্ষীরার উন্নয়ন চায় না। তারা সাতক্ষীরার শত্রু, দেশের শত্রু।
বক্তারা আরো বলেন, ডা: আফম রুহুল জননেত্রী শেখ হাসিনার অত্যান্ত আস্থাভাজন ব্যক্তি। বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা পরিষদে দক্ষিণ অঞ্চল থেকে শুধু মাত্র সাতক্ষীরাবাসীর প্রাণ, হৃদয়ের স্পন্দন জননেতা ডা: আফম রুহুল সাহেব সুযোগ পেয়েছেন। কতিপয় স্বার্থন্বেষী মহল তার জনপ্রিয়তা ও সফলায় ইর্ষান্বিত হয়ে গুটিকতক লোককে ম্যানেজ করে একটি হাস্যকর মানববন্ধন করেছে। আমরা এর তীব্র নিন্দা জানাই এবং আগামীতে যাতে ডা: রুহুল হকের মত সম্মানিত ও জনপ্রিয় ব্যক্তির নামে এভাবে অপপ্রচার চালাতে আর কেউ সাহস না পায় সে কারণে ওই মহলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান।

Related posts