আশাশুনিতে সাংবাদিক রমেশের স্মরণে শোক র‌্যালি


মোস্তাফিজুর রহমান:
আশাশুনি উপজেলার প্রবীণ সাংবাদিক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা সদ্য প্রয়াত রমেশ চন্দ্র বসাকের স্মরণে বুধহাটায় র‌্যালি ও শোক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। আশাশুনি রিপোর্টার্স ক্লাবের আয়োজনে শনিবার বিকালে বুধহাটা বাসষ্ট্যান্ড চত্ত্বর থেকে একটি শোক র‌্যালি বের হয়ে বাজারের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে পুনরায় বাসষ্ট্যান্ড গিয়ে আলোচনা সভায় মিলিত হয়। আশাশুনি রিপোর্টার্স ক্লাব সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, সিনিয়র সাংবাদিক সচ্চিদানন্দদে সদয়, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল গফুর সরদার, অবঃ সেনা সদস্য আলহাজ্ব শেখ আছাফুর রহমান। আসক ফাউন্ডেশনের সহযোগিতায় ও আশাশুনি রিপোর্টার্স ক্লাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি আইয়ুব হোসেন রানার পরিচালনায় অন্যানের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সহ-সভাপতি সুব্রত দাশ, শেখ বাদশা, সাংগঠনিক সম্পাদক এম এম নুর আলম, অর্থ সম্পাদক মইনুল ইসলাম, সাংবাদিক মাসুম বাবুল, শাহীন আলম, শেখ আছাদুজ্জামান মুকুল, বিএম আলাউদ্দীন, মানবাধিকার সংস্থা আসক ফাউন্ডেশন সভাপতি মহিউদ্দীন মিঠু, সিনিয়র সহ সভাপতি শাহ আলম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, মরিরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক রাজিব হোসেন, বুধহাটা ইউনিয়ন সাবেক ছাত্রলীগ সেক্রেটারী শামছুর রহমান রাজু প্রমুখ। আলোচনা সভার শুরুতে প্রয়াত রমেশ চন্দ্র বসাক এর স্মরণে ১মিনিট নিরাবতা পালন করা হয়। সভায় বক্তাগণ বলেন, প্রয়াত রমেশ চন্দ্র বসাক শুধু সাংবাদিকই ছিলেন না, তিনি ১৯৭১ সালে জীবনের মায়া ত্যাগ করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে সাড়া দিয়ে দলবদ্ধ ভাবে পাকিস্থানী হানাদার বাহিনীর উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে দেশকে স্বাধীন করেছিলেন। তিনি সাংবাদিকতার মধ্য দিয়ে সাধারণ মানুষের সুখ-দুঃখের বিপদে এগিয়ে যেতেন। তিনি সাংবাদিক নেতা হিসেবে আশাশুনিতে দীর্ঘদিন কাজ করে গেছেন। উল্লেখ্য, সাংবাদিক রমেশ চন্দ্র বসাক বাধ্যক্ষ জনিত কারণে গত ১৭ সেপ্টেম্বর তিনি পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করে পরলোক গমন করেন।

Related posts