শ্যামনগরে ইউপি চেয়ারম্যান কর্তৃক ভূমিহীনদের বসতবাড়ি ভাংচুর ও লুটপাট

প্রেস বিজ্ঞপ্তি :
শ্যামনগরের পদ্মপুকুরে ভূমিদস্যু ইউপি চেয়ারম্যান কর্তৃক ভূমিহীনদের বসতবাড়ি ভাংচুর ও লুটপাটের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এক জনার্কীন সংবাদ সম্মেলনে করেছেন শ্যামনগর উপজেলার পদ্মপুকুর ইউনিয়নের ঝাপা গ্রামের স্থায়ী বাসিন্দারা।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলেন আমরা প্রকৃতপক্ষে ভূমিহীন, অসহায় দরিদ্র। ইটের ভাটায় শ্রমিকের কাজ এবং নদীতে মাছ ধরে আমরা জীবন-জীবিকা নির্বাহ করি। বিগত ২০০৭ সাল থেকে ঝাপা মৌজায় খতিয়ান নং ১৩০০, ১নং দাগে ৩ পরিবারের নামে ৩ এক সরকারি সম্পত্তি সরকার বাহাদুরের কাছ থেকে ইজারা নিয়ে বসতঘর নির্মাণ করে এবং ছোট ছোট ঘের করে মৎস্যচাষ করে আসছিলাম। কিন্তু গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে পদ্মপুকুর ইউপির চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন এড. আতাউর রহমান। নির্বাচিত হওয়ার পর আমাদের ওই ইজারা নেওয়া সম্পত্তির উপর কু নজর পড়ে তার। সে আমাদের স্ব পরিবারে উচ্ছেদ করে আমাদের সম্পত্তি দখলের পায়তারা শুরু করে। এর জের ধরে চেয়ারম্যান আতাউর ও তার বাহিনীর সদস্যরা আমাদের তিন অসহায় পরিবারকে উচ্ছেদের জন্য বিভিন্ন ষড়যন্ত্র চালাতে থাকে।
গত ৫/৭/২০১৯ তারিখে স্থানীয় সাবেক মেম্বর তপন কুমারের মৎস্য ঘের থেকে আমাদের ৫ বছরের একটি শিশুসহ কয়েকটি শিশু মাছ ধরে। এবিষয় নিয়ে ওইদিন তপন মেম্বরের লোকজন আমাদের পরিবারের সকলকে বেধড়ক মারপিট করে। পরে চেয়ারম্যান আতাউর রহমান ঘটনাস্থলে গিয়ে বিষয়টি দেখে আমাদের বলেন, তোমরা মামলা করো না আমি মিমাংসা করে দেবো। এদিকে তপন মেম্বরকে দিয়ে আমাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করিয়ে ১ একজন আটক করিয়ে জেল হাজতে পাঠায়।
তারা আরো বলেন ১৩ জুলাই সকালে চেয়ারম্যান আমাদের পক্ষ থেকে শহীদুলকে বলেন, বাড়ি ছেড়ে তোমরা নেমে আসো আমি মিমাংসা করে দেবো। পরে শনিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে চেয়ারম্যান আতাউর রহমান, তার সহযোগী একই এলাকার মৃত. সুখচাঁদ গাজীর পুত্র আইয়ুব, সামাদ গাজীর পুত্র শফি, সুরমান মোল্লার পুত্র মনিরুল, ইউসুফ গাজীর পুত্র সাইফুল্লাহ, শরবত আলীর পুত্র সোহরাব হোসেন, মোহাম্মাদ আলীরপুত্র মিন্টু মল্লিক, শাহাজানের পুত্র রাহাজানসহ ১০০/১৫০ জন সন্ত্রাসীর বিভিন্ন ধারালো অস্ত্র শস্ত্র নিয়ে আমাদের বাড়িতে হামলা চালায়। এসময় আমাদের তিনটি বাড়ি ভেঙে দেয়। বাড়িতে থাকা মূল্যবান মালমাল,স্বর্ণের গহনা, টাকা পয়সা লুটপাট করে।
আমাদের ওই সম্পত্তি ও বাড়ি ছাড়া আর কিছুই নেই। সেটুকুও কেড়ে নিলো চেয়ারম্যান। এখন স্ত্রী সন্তান নিয়ে পথে পথে ঘুরে বেড়াচ্ছি।
এব্যাপারে ভূমিদস্যু চেয়ারম্যান আতাউর রহমান ও তার বাহিনী কর্তৃক আমাদের বাড়ি ঘর ভাংচুর ও লুটপাটের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি এবং আমাদের ইজারাকৃত সম্পত্তি ফেরত পাওয়ার দাবিতে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক ও সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারসহ সংশি¬ষ্ট কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন তার।

Related posts