এড. পলাশকে জেলা নেতৃবৃন্দের ফুলেল শুভেচ্ছা

প্রেস বিজ্ঞপ্তি:বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী পরিষদের কেন্দ্রীয় ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট আল মাহমুদ পলাশ দক্ষতার সহিত দেশব্যাপী সংগঠন পরিচালনা এবং সংগঠনের কাঠামো গড়ে তোলায় ত্যাগী সংগঠক হিসেবে জাতীয় ভাবে সাংগঠনিক ক্ষেত্রে বিশেষ অবদান রাখার জন্য জননেত্রী শেখ হাসিনা সন্মাননা- ২০১৯ পদক প্রদান করায় বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী পরিষদ’র সাতক্ষীরা জেলা নেতৃবৃন্দ শনিবার বিকালে দলের জেলা কার্যালয়ে উপস্থিত হয়ে এডভোকেট আল মাহমুদ পলাশ কে অভিনন্দন জানিয়ে ফুলেল শুভেচ্ছা বিনিময় করেছেন।
এসময়ে উপস্থিত ছিলেন বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী পরিষদের সাতক্ষীরা জেলা শাখার সহ-সভাপতি এম এ মুহিত, আসাদুল ইসলাম, ইমামুল ইসলাম, জেলা সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুর রাজ্জাক, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু বাক্কার প্যাথল, সহ-সাংগঠনিক আহসান হাবিব, এড. নাসির উদ্দীন, মিজানুর রহমান, দপ্তর সম্পাদক শফিকুল ইসলাম বাবলু, সাহিত্য সাংস্বৃতিক ও ক্রীড়া সম্পাদক মাষ্টার আনোয়ার হোসেন, কুটির শিল্প সম্পাদক মোছাক সরদার,স্বাস্থ্য সম্পাদক ডাঃ খলিলুর রহমান, সমাজ কল্যান সম্পাদক জামাল উদ্দীন বকুল, বন ও পরিবেশ সম্পাদক কিয়ামুদ্দীন গাজী, মহিলা সম্পাদক লাকী বালা, কৃষি ঋণ পূর্নবাসন সম্পাদক ইদ্রিসুল ইসলাম পলাশ। নির্বহী সদস্য নুরুল ইসলাম, আল ইকরাম সজিব, জামাল আহমেদ বাদল, হাফিজুল ইসলাম, মাষ্টার আবুল কালাম আজাদ, হামিদুজ্জামান সুজন,আবু বক্কর সিদ্দিক মিনু, প্রভাষক শিবপদ সরকার, মুক্তিযোদ্ধা মনোরঞ্জন বন্দোপধ্যায় মাষ্টার রফিকুল ইসলাম, প্রভাষক জি এম জাহাঙ্গীর, মুকুল বিশ্বাস, আসাদুজ্জামান লাভলু, জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।
এসময়ে এডভোকেট আল মাহমুদ পলাশ নেতাকর্মিদের কে বলেন ২০২১ সালে স্বাধীনতার সুবর্ণজন্তীতে বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হবে এবং ২০৪১ সালে বিশ্ব সভায় একটি উন্নত দেশের মর্যাদায় অভিষিক্ত হবে, এটাই জাতির প্রত্যাশা। বাংলাদেশ মানেই বঙ্গবন্ধু। তাই জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন বাস্তবায় ন করে দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার জন্য কাজ করে যাচ্ছে বর্তমান সরকার। বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত কাজ বাস্তবায়ন হচ্ছে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরেই বলে উল্লেখ করেন।

Related posts