রোহিতের ব্যাটে বাংলাদেশকে হারিয়ে সমতায় ভারত

খেলার খবর: টাইগারদের দেওয়া সহজ লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভার শেষ হবার আগেই ১৫. ৪ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে জয়ের বন্দরে পৌঁছে ক্রিকেট পরাশক্তি ভারত। যার ফলে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে হারের পর আজ দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে জিতে সিরিজ সমতায় ফেরালো ভারত।

১৫৪ রানের লক্ষ্য তাড়ায় ভারতকে উড়ন্ত সূচনা এনে দিয়েছে রোহিত শর্মা ও শিখর ধাওয়ানের উদ্বোধনী জুটি। শুরু থেকেই টাইগার বোলারদের আক্রমণাত্মক ভাবে খেলতে থাকেন ভারতীয় দুই ওপেনার। তবে ভারতের এই বিস্ফোরক উদ্বোধনী জুটি ভাঙ্গেন তরুণ লেগ স্পিনার আমিনুল ইসলাম বিপ্লব। দলীয় ১১৮ রানে শিখর ধাওয়ানকে সরাসরি বোল্ড করেন বিপ্লব। আউট হওয়ার আগে এই ব্যাটসম্যান করেন ২৭ বলে ৩১ রান।

এরপর আবারও ভারতীয় শিবিরে আঘাত হানে আমিনুল ইসলাম বিপ্লব। এবার তার শিকার আরেক বিস্ফোরক ওপেনার রোহিত শর্মা। সাজঘরে ফেরার আগে এই ব্যাটসম্যান করেন ৪৩ বলে ৮৫ রান। এর আগে ২৩ বলে ঝড়ো হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন তিনি। শেষের দিকে লোকেশ রাহুল ও শ্রেয়াস আইয়ারের ব্যাটিং নৈপুণ্যে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ভারত।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভার খেলে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৫৩ রান করে টাইগাররা। টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা দারুণ করে দুই ওপেনার লিটন দাস ও নাঈম শেখ। তবে ব্যক্তিগত ১৭ রানে প্যাভিলিয়নে ফিরে যেতে পারতেন লিটন কিন্তু ভারতের উইকেটকিপারের ভুলে বেঁচে যান তিনি। সুযোগ পেয়েও ব্যর্থ ছিল এই ব্যাটসম্যান। দলীয় ৬০ রানে চাহালকে ঠিকমতো খেলতে পারেননি লিটন। উইকেটকিপারফ রিষভ পন্ত সামনে দৌড়ে দ্রুত বল ধরে সরাসরি থ্রোয়ে ভাঙেন স্টাম্প। প্যাভিলিয়নে ফেরার আগে এই ব্যাটসম্যান করেন ২১ বলে ২৯ রান।

এরপর দ্রুতই সাজঘরে ফিরে যায় তরুণ ওপেনার নাঈম শেখ। ওয়াশিংটন সুন্দরের বলে স্লগ সুইপ খেলেছিলেন তিনি। কিন্তু শটে জোর ছিল না তেমন। মিড উইকেট সহজ ক্যাচ নেন শ্রেয়াস আইয়ার। আউট হওয়ার আগে নাঈম করেন ৩১ বলে ৩৬ রান। যখন দুই উইকেট হারিয়ে কিছুটা চাপে পরে বাংলাদেশ তখন টাইগার শিবিরের চাপ আরো বাড়িয়ে দেন মিস্টার ডিপেন্ডেবল মুশফিকুর রহিম ও সৌম্য সরকার।

গত ম্যাচের জয়ের নায়ক মুশফিক ছিলো আজ ব্যর্থ। মুশফিকের দেখানো পথেই হেঁটে যান সৌম্য সরকার। যুজবেন্দ্র চাহালের একই ওভারে আউট হয়েছেন মুশফিকুর রহিম ও সৌম্য সরকার। প্রথম বলে সুইপ করতে গিয়ে ডিপ মিড উইকেটে সহজ ক্যাচ দেন ৪ রান করা মুশফিক। শেষ বলে বেরিয়ে এসে খেলতে গিয়ে স্টাম্পড হন সৌম্য সরকার। ২০ বলে সৌম্য করেন ৩০। আর আফিফ আউট হয় ৮ বলে ৬ রান করে। শেষের দিকে অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের ব্যাটিং নৈপুণ্যে লড়াকু সংগ্রহ পায় বাংলাদেশ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর
ভারত: ১৫৪ /২ (১৫.৪ ওভার)
বাংলাদেশ: বাংলাদেশ: ১৫৩/৬ (২০ ওভার)
টার্গেট: ১৫৪ রান।

বাংলাদেশ একাদশ: লিটন কুমার দাস, সৌম্য সরকার, মোহাম্মদ নাঈম শেখ, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, আফিফ হোসেন, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, আমিনুল ইসলাম বিপ্লব, শফিউল ইসলাম, মুস্তাফিজুর রহমান ও আল-আমিন হোসেন।

ভারত একাদশ: রোহিত শর্মা, শিখর ধাওয়ান, লোকেশ রাহুল, শ্রেয়াস আইয়ার, রিষভ পন্ত, ক্রনাল পান্ডিয়া, শিভাম দুবে, ওয়াসিংটন সুন্দর, দীপক চাহার, যুজবেন্দ্র চাহাল ও খলিল আহমেদ।

Related posts