প্রতাপনগর ইউপি চেয়ারম্যানসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে মান হানির মামলা

নিজস্ব প্রতিনিধি : মিথ্যা, ভিত্তিহীন ও তথ্য উপস্থাপন করে ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ নেতার বিরুদ্ধে সংবাদ করায় প্রতাপনগর ইউপি চেয়ারম্যান জাকিরসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে মান হানির মামলা দায়ের করা হয়েছে। ২০ নভেম্বর ২০১৯ তারিখে আশাশুনি উপজেলার শুভদ্রাকাটি গ্রামের আলহাজ¦ শওকত আলীর সানার ছেলে ও প্রতাপনগর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ সোহরাব হোসেন এ মামলা দায়ের করেছেন। যার নং (ধারা- ধ: বি: ৫০০/৬০০ (২য়) /১০৯/১১৪ পিসি)
মামলার আসামীরা লঙ্করী খাজরা গ্রামের শেখ আমিনুর রহমানের পুত্র ও প্রতাপনগর ইউপি চেয়ারম্যান শেখ জাকির হোসেন,কুড়িকাহনিয়া গ্রামের মৃত জয়নুদ্দীন গাজীর ছেলে মোঃ আমজাদ হোসেন, কল্যাণপুর গ্রামের আহম্মদ সানার ছেলে রিয়াসাত আলী মামুন, নাকনা গ্রামের মৃত মেহের আলী গাজীর ছেলে মুজিবর রহমান, কল্যাণপুর গ্রামের সামছুর রহমানের ছেলে মুশফিকুর রহমান লিটন, গোকুলনগর গ্রামের মৃত পরাশ উল্লাহ গাজীর ছেলে মোকছেদ গাজী, কল্যাণপুর গ্রামের মৃত সুন্দর আলী সানার ছেলে আমিরুল ইসলাম খোকন ও মৃত আতিয়ার মতিয়ার রহমানের ছেলে গোলাম মোস্তফা, কল্যাণপুর গ্রামের মৃত আবুল কাশেম মাষ্টারের ছেলে মঞ্জরুল ইসলাম নান্টু।
মামলা সূত্রে জানা গেছে, সোহরাব হোসেন সানার ব্যবসায়ীক সফলতায় ঈশ্বান্বিত হয়ে তাকে সমাজে হেয় প্রতিপন্ন করতে চেয়ারম্যান জাকিরের নেতৃত্বে অন্যরা বিভিন্ন সময় মানহানিকর কথাবার্তা বলে আসছিল। একপর্যায়ে গত ১৮ নভেম্বর ১৯ তারিখে চেয়ারম্যান জাকিরের কু প্ররোচনায় ও সক্রিয় সহযোগিতায় উক্ত আসামীরা সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলন করে। যা পরদিন সাতক্ষীরার বিভিন্ন স্থানীয় পত্রিকায় প্রকাশিত হয়। উক্ত সংবাদ সম্মেলনে সোহরাব হোসেনের বিরুদ্ধে ৩টি মামলা থাকার কথা বলা হয়েছে। অথচ বর্তমানে সোহরাব হোসেনের বিরুদ্ধে কোন আদালত বা থানায় মামলা নেই। এছাড়া যে ৩টি মামলা তার বিরুদ্ধে হয়েছিল সবগুলোই চেয়ারম্যান জাকিরের ইন্ধনে করা হয়েছে। পরবর্তীতে বিজ্ঞ আদালত মামলাগুলোর কোন প্রমান বা সত্যতা না পেয়ে তাকে মামলা থেকে অব্যাহতি প্রদান করেছেন। এছাড়া ১৯ নভেম্বর উল্লেখিত ব্যক্তিরা তাকে খুন জখমের হুমকি ধামকিও প্রদান করেন। এঘটনায় উল্লেখিত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের দাবিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

Related posts