সৎ, কর্মঠ অফিসারের বিরুদ্ধে মিথ্যাচারের প্রতিবাদে তালা উপজেলা আনসারদের সংবাদ সম্মেলন

তালা প্রতিনিধি : সাতক্ষীরা তালা উপজেলা আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদ ও সাবেক আনসার সদস্য কর্তৃক মিথ্যাচারের প্রতিবাদে বুধবার (২০ নভেম্বর) তালা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বেলা ১১ টায় অনুষ্ঠিত জনাকীর্ণ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে আনসার ও ভিডিপি তালা উপজেলা কোম্পানী কমান্ডার মো: আব্দুল গফুর এ অভিযোগ করেন।
লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, সাতক্ষীরার তালা উপজেলার ১২ টি ইউনিয়নে মোট ৪৮ জন ইউনিয়ন দলনেতা-নেত্রীসহ কর্মী দায়িত্বপ্রপ্ত রয়েছেন। সম্মেলনে প্রায় সকলের উপস্থিতিতে লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, বর্তমান তালা উপজেলা আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তা হিসেবে যোগদানের পর থেকে দূর্নীতি-অনিয়ম,স্বজনপ্রীতি জিরো টলারেন্সে চলে এসেছে। একজন সৎ,পরিশ্রমী ও নিষ্ঠাবান কর্মকর্তা হিসেবে ইতোমধ্যে তিনি ব্যাপক পরিচিতি লাভ করেছেন। এছাড়া তার অধিনে দায়িত্ব পালনকালে আচার-ব্যবহারে সকলে সন্তুষ্ঠ বলে দাবি করেন, আব্দুল গফুর।
তিনি তার বক্তব্যে আরো বলেন,আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তার আচারণে প্রায় সকল আনসার ও ভিডিপি দলনেতা,আনসার সদস্য-সদস্যা সন্তুষ্ঠ হলেও কতিপয় স্বার্থান্বেষী,কু-চক্রী,অর্থলোভী বিশেষ করে সাবেক আনসার সদস্য আসলাম উদ্দীনসহ তার কতিপয় অনুসারীরা খুশী হতে পারেননি। তাদের হীণ উদ্দেশ্য হাসিলে ব্যর্থ হয়ে কর্মকর্তা তাহমিনা খাতুনের বিরুদ্ধে মিথ্যা,ভিত্তিহীন,বানোয়াট কূ-রুচীপূর্ণ অভিযোগ উত্থাপন করে আনসার ও ভিডিপির উপ-মহাপরিচালক ও স্থানীয় সাংবাদিকদের কাছে সরবরাহ করেছে।
যার প্রতিবাদে সত্য তথ্য উত্থাপন ও অভিযোগকারীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য তারা এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন।
তিনি বলেন,তালা উপজেলার খলিলনগর ইউনিয়নের নলতা গ্রামের আসলাম উদ্দীনের উত্থাপিত অভিযোগ প্রসঙ্গে আরো বলেন, জাল প্রশিক্ষণ সনদপত্র,ভূয়া নির্বাচনী বুকলেট তৈরি করে দায়িত্ব প্রদান ও তাদের কাছ ৫০০ টাকা করে উৎকোচ গ্রহণ,সদস্যদের বিরুদ্ধে গালিগালাজসহ সকল অভিযোগ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন।স্বীয় স্বার্থ চরিতার্থে ব্যর্থ হয়ে তাকে হেয় প্রতিপন্ন করার লক্ষ্যেই তার বিরুদ্ধাচারণ করা হচ্ছে।
মূলত উক্ত আসলাম উদ্দীন অনিয়মের আশ্রয় নিয়ে আনসার ও ভিডিপির নীতিমালার বাইরে বিভিন্ন সরকারি কাজ যেমন,দূর্গাপূজা,প্রশিক্ষণসহ বিভিন্ন বিষয়ে লোক নিয়োগের নামে সাধারণ সদস্যদের কাছ থেকে চাঁদা/উৎকোচ গ্রহন করে সংগঠনের ভাব-মূর্তি ক্ষুন্ন করায় এবং অফিস চলাকালীণ সময়ে আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তা তাহমিনা খাতুনকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও মার-ধরসহ নানাবিধ হুমকি-ধামকি দেওয়ায় দাপ্তরিক কাজে সর্বোচ্চ অসহযোগিতা করাসহ তার হীণ স্বার্থ হাসিল করতে না পারায় দূর্গা পূজা-২০১৮ থেকে অদ্যাবধি স্বেচ্ছায় উদ্দেশ্য প্রণোদিত হয়ে দপ্তরে না আসা সর্বোপরী তার লাগামহীণ দূর্নীতি ও অসদাচারণে বাঁধাগ্রস্থ হওয়ায় তিনি পরিকল্পিতভাবে সৎ,ন্যায়পরায়ন,আদর্শের মূত প্রতীক আভি কর্মকর্তা তাহমিনার বিরুদ্ধে একর পর এক কতিপয়দের সাথে নিয়ে একর পর এক মিথ্যাচার ও ষড়যন্ত্রপূর্বক মিথ্যা অভিযোগ উত্থাপন করে আসছেন। যা বিভিন্ন দপ্তরে পাঠিয়ে নোংরা স্বার্থ হাসিলের চেষ্ঠা করছেন। যা বিভাগীয় উর্দ্ধতনসহ সকলে অবগত রয়েছেন।
প্রসঙ্গত, গত দূর্গাপূজা ২০১৮ সালের পর থেকে অদ্যবধি আসলাম উদ্দীন কোন দিন অফিসে হাজির হননি কিংবা কোন প্রকার কর্মকান্ডের সাথে জড়িত ছিলেননা,অন্যদিকে তার অভিযোগের সময়কাল যেহেতু উক্ত সময়ের মধ্যের। তাই তার অভিযোগের বিষয়টি সম্পূর্ণ মিথ্যা,ভিত্তিহীন।
এসময় অফিসের কর্মচারীবৃন্দসহ সকল সদস্য,সদস্যাবৃন্দ কূচক্রী মহলের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে এর প্রতিবাদ করছি। পাশাপাশি সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের লেখনীর মাধ্যমে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের জোর দাবি জানান।

Related posts