তালায় আ’লীগের কাউন্সিলে দুর্নীতিবাজ ও বিতর্কিতদের প্রত্যাখানের দাবি

নিজস্ব প্রতিনিধি : সাতক্ষীরার তালায় আসন্ন আওয়ামী লীগের কাউন্সিলে দুর্নীতিবাজ ও বিতর্কিতদের প্রত্যাখানের দাবি জানিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছে নাগরিক কমিটি। রবিবার (২৪ নভেম্বর) সকালে তালা প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন তালা উপজেলা নাগরিক কমিটির মুখপাত্র এম এম ফজলুল হক।
আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধা নমন্ত্রী শেখ হাসিনার দুর্নীতির ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি এবং জঙ্গিদের মত দুর্নীতিবাজ-চাঁদাবাজদের দমন করা হবে এমন হুঁশিয়ারির পরিপ্রেক্ষিতে আসন্ন তালা উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে যাতে দুর্নীতিবাজ ও বিতর্কিতরা সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকসহ কমিটিতে স্থান না পায় সেজন্য সাংবাদিকদের লেখনীর মাধ্যমে তিনি কাউন্সিলারদের অবগত করার পাশাপাশি জেলা আওয়ামী লীগ, দলের খুলনা বিভাগের সাংগঠনিক সম্পাদক, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং দলীয় সভাপতি ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।
এ সময় নাগরিক কমিটির মুখপাত্র এম এম ফজলুল হক লিখিত বক্তব্যে বলেন, তালা উপজেলা অসাম্প্রদায়িক ও স্বাধীনতার স্বপক্ষের রাজনীতির একটি উর্বর ভূমি। তালার সার্বিক উন্নয়নের জন্য তালা নাগরিক কমিটি নামে একটি নাগরিক কমিটি গঠন করা হয়েছে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নের পাশাপাশি এই কমিটির মাধ্যমে তালার সার্বিক উন্নয়নে সহায়কের ভূমিকা পালন করতে চায়। এছাড়া এই কমিটি বিভিন্ন উন্নয়নের দাবি দাওয়া পেশ করার পাশাপাশি অন্যায়েরও প্রতিবাদ করে থাকে।
তিনি আরও বলেন, বর্তমান সরকার সু-শাসন প্রতিষ্ঠার লক্ষে দুর্বার গতিতে কাজ করে যাচ্ছে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সন্ত্রাস জঙ্গিবাদ দমনে সফল হয়েছে এবং বর্তমানে দুর্নীতি ও মাদক বিরোধী অভিযান চলমান রয়েছে।
তিনি বলেন, সম্প্রতি কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে ৩০ নভেম্বরের মধ্যে উপজেলা এবং ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে মেয়াদোত্তীর্ণ জেলা সম্মেলন শেষ করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। আগামী নেতৃত্ব নির্বাচর করার ক্ষেত্রে সতর্ক করে তৃণমূলে চিঠি পাঠিয়েছেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ। দলীয় সভানেত্রী স্বাক্ষরিত এ চিঠিতে দুর্নীতি ও চাঁদাবাজ, বিতর্কিত, অনুপ্রবেশকারী, যারা দলে বিভেদ সৃষ্টি করে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করেছেন ও ‘পদ বাণিজ্যে’র সঙ্গে জড়িত- এমন নেতাদের কোনো স্তরের কমিটিতে স্থান না দিতে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তের আলোকে আগামী ৬ ডিসেম্বর তালা উপজেলার ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনের দিন ধার্য্য করা হয়েছে।
এদিকে আওয়ামী লীগের সভাপতি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ও সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুুল কাদের সাম্প্রতিক কালে বিভিন্ন মিডিয়ায় বক্তব্য প্রদান কালে, এবারের সম্মেলনে নতুন নেতৃত্বে প্রার্থী বাছাইয়ে স¦চ্ছ, পরিছন্ন, দুঃসময়ে পরিক্ষীত, ত্যাগী কর্মীদের মূলায়ন করা ইঙ্গিত দেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তুণমূলে পর্যায়ে সংগঠনকে সাংগঠনিক ভাবে মজবুত করার লক্ষ্যে ইতিমধ্যে শুদ্ধি অভিযান শুরু করেছেন।
এছাড়া তৃণমূল পর্যায়ে বিভিন্ন সময় কমিটি নিয়ে বাণিজ্য হলেও এবার একটি অভিযোগও যেন না আসে সে ব্যাপারে কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদকেরা নির্দেশনা দিয়েছেন। কোনো বিতর্কিত নেতা যেন কমিটিতে স্থান না পায় সেটির ব্যাপারেও তাগিদ দেয়া হয়েছে। এরই প্রেক্ষিতে তালা উপজেলাকে দুর্নীতি, দখলবাজী, জুয়া, মাদক, ভুয়া প্রকল্প বাস্তবায়ন করে অর্থ আত্মসাৎ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নিয়োগের নামে অর্থ বাণিজ্য, দালালীসহ বিভিন্ন অপকর্মের হাত থেকে রক্ষা করার জন্য ক্লিন ইমেজধারী সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক দেখতে চায় নাগরিক কমিটি।
উক্ত সংবাদ সম্মেলনের সময় উপস্থিত ছিলেন তালা উপজেলা নাগরিক কমিটির আহবায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আলাউদ্দীন জোয়ার্দ্দার,সদস্য সচীব শেখ শফিকুল ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা জি,এমএ সবুর,মোহাম্মাদ আলী, সাবেক ইউপি সদস্য কামরুল ইসলাম লাল্টু,মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের আহবায়ক শেখ জাহিদুর রহমান লিটু, আওয়ামী লীগ নেতা ইউপি আব্দার রহমান, শ্রমিক লীগনেতা শফিউর রহমান ডানলফ প্রমুখ।

Related posts