প্রধানমন্ত্রীর গাড়ী বহরে হামলার মামলার বাদীর শয্যা পাশে কৃষকলীগ নেতৃবৃন্দ

pic-kl-mediumনিজস্ব প্রতিবেদক: বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তনয়া শেখ হাসিনার গাড়ি বহরে হামলা মামলার বাদী, মহান মুক্তিযুদ্ধের গেরিরা কমান্ডার, ৬৯’র সর্বদলীয় ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের কলারোয়া আহবায়ক মোসলেম উদ্দীন গত ১২/০৮/১৬ তারিখে হার্ট এ্যাটাক জনিত কারণে অসুস্থ্য। বর্তমানে তিনি কলারোয়ার নিজ বাড়িতে বিছানা শয্যায়। তার শারিরীক অবস্থার কিছুটা উন্নতি হলেও বিছানা ছেড়ে উঠতে পারছেন না। চিকিৎসকের পরামর্শ ‘বেশি কথা না বলা’। তাছাড়া তিনি দীর্ঘদিন যাবৎ প্যারালাইসডে ভুগছেন। শনিবার তার শারিরীক অবস্থার খোঁজ খবর নিতে সাতক্ষীরা জেলা ও পৌর কৃষক লীগের নেতৃবৃন্দ তার শয্যাপাশে যান। নেতৃবৃন্দকে পাশে পেয়ে গেরিলা কমান্ডার মো. মোসলেম উদ্দীন আবেগপ্লুত হয়ে পড়েন। এসময় তিনি খুব সংক্ষেপে তুলে ধরেন তার মনের কথা। শেখ হাসিনার গাড়ি বহরে হামলা মামলার বাদী মো. মোসলেম উদ্দীন বলেন, “অবস্থা দৃষ্টে মনে হচ্ছে, মামলাটি আমার পৈত্রিক। মামলাটি নিয়ে বাণিজ্য হচ্ছে এমন অভিযোগ করে তিনি বলেন, আমি যতদিন বেঁচে থাকবো ততদিন লড়ব। আমি মারা গেলে হয়তো মামলাটি আর থাকবে না। আমাকে কোটি টাকার প্রলোভন দেখানো হয়েছিল। কিন্তু আমি লোভ মোহের উর্ধ্বে থেকে মামলাটি লড়ে যাচ্ছি। আমি মামলাটির রায় দেখে যেনো মরতে পারি এমন ইচ্ছা পোষন করেন গেরিলা কমান্ডার সাবেক ছাত্রনেতা মো. মোসলেম উদ্দীন। তিনি মামলাটি পরিচালনার ক্ষেত্রে কলা- কুশলীদের আরো দায়িত্বশীল ভূমিকা পালনের আহ্বান জানান।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা কৃষকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এড. আল মাহমুদ পলাশ, পৌর আওয়ামীলীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক, আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধালীগের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি এস এম মহিউদ্দীন, শেখ রাসেল স্মৃতি ক্রীড়াচক্রের কেন্দ্রীয় সহ- সভাপতি মোঃ আবু তাহের, জেলা কৃষকলীগের প্রচার সম্পাদক মনোজ কুমার দে, কৃষি ও পূণবার্সন সম্পাদক শফিকুল ইসলাম, প্রকাশনা সম্পাদক এস এম শহিদুল ইসলাম, ভূমি সম্পাদক তারিকুল ইসলাম, পৌর কৃষকলীগের আহবায়ক শেখ ইয়াকুব আলী, যুগ্ম আহবায়ক খান আব্দুস সামাদ ও সৈয়দ আব্দুস সেলিম, কলারোয়া উপজেলা কৃষকলীগ নেতা এস এম আইয়ুব হোসেন, ইসলাম হোসেন ও নুর আলী সরদার প্রমুখ।

Related posts