বইয়ের নাম ‘তককো ও ফককো’ -শ্রাবস্তী ব্যানার্জী

বইয়ের নাম : তককো ও ফককো

লেখক : বাবলু ভঞ্জ চৌধুরী

মূদ্রিত মূল্য : ১৩০ টাকা

প্রকাশনী : কলি

জুতো চুরি করে ধরা পড়ল তককো এবং প্রচুর মার খেলো। কিন্তু তাকে বাঁচালেন যে ব্যক্তি তিনি কিন্তু যেমন তেমন কেউ নন, তিনি জাফর ইকবাল স্যার, যাঁর জুতো চুরি করতে গিয়েছিল তককো। তককোকে তিনি শুধু বাঁচালেনই না নিজের বাড়িতে আশ্রয়ও দিলেন। একদিন রাতে খাওয়ার পর তককো সোফায় ঘুমোনোর ভান করে আড়ি পেতে জাফর ইকবাল সাহেব এবং তাঁর স্ত্রীর কথোপকথন শুনছিলো। কথাবার্তা শুনে তককো জানতে পারে নিউট্রন স্টারের সংঘর্ষের ফলে মহাকাশে হীরা ঝরে পড়ছে। এসব শুনে তককোর মাথায় অদ্ভুত বই প্রকাশের আজব বুদ্ধি খেলে যায়। ভিখিরি ফককোর লেখা তককোর প্রকাশনায় প্রকাশিত হল ‘শূন্য থেকে কোটি টাকা’। বইটি খুব তাড়াতাড়ি বেস্ট সেলার হল। কিন্তু কি হলো স্রেফ ভাওতাবাজি করে লেখা বই পড়ার পর মানুষের প্রতিক্রিয়া ? কি হলো তককো ফককোর অবস্থা ? জানতে হলে পড়তে হবে বইখানা।

এই ধরনের বই আগে তেমন পড়া হয় নি। ‘বাস্তবের সাথে ঘটনার কোনো মিল নেই’ টাইপ বই। পুরোপুরি অবাস্তব। চোর আর ভিখিরি মিলে বই বের করেছে ব্যাপারটা বুঝি গল্পেই সম্ভব। লেখকের কল্পনাশক্তির এলেম আছে বলতে হবে। তককো ফককো সত্যিই বেশ হাসির গপ্পো। মাঝে মাঝে এরকম বই পড়লে মন খুলে হাসা যায়। ৬০ পৃষ্ঠার ছোট্ট বইখানা এক বসাতেই পড়ে ফেলেছি। মোটামুটি ভালো লেগেছে। শেষ বিকেলের হালকা মন খারাপের সঙ্গী করতে পারেন ‘তককো ও ফককো’কে।

লেখক: সাতক্ষীরা সরকারি কলেজের শিক্ষার্থী

Related posts