প্রধানমন্ত্রীকে ফোন করে মুদি দোকানি যা চাইলেন সব পেলেন

ভিন্ন স্বাদের খবর: গত ১২ মে নেত্রকোনার এক মুদি দোকানির সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

নেত্রকোনার বারহাট্টা উপজেলার ওই মুদি দোকানির নাম মো. ডালিম।

মোবাইলে প্রধানমন্ত্রী মো. ডালিমকে তার আয় উপার্জন বিষয়ে জিজ্ঞাসা করেন।

তিনি জিজ্ঞাসা করেন, তোমার জীবিকা কিভাবে চলে?

জবাবে ডালিম জানায়, টানপোড়নের সংসার তার। ছোটখাটো একটি মুদি দোকান রয়েছে তার, যা দিয়ে কোনোরকমে সংসার চলে যায়। তবে বাকি প্রয়োজনীয় বিষয়ে টাকা-পয়সা খরচের সামর্থ্য হয়ে ওঠেনা।

ডালিমের এমন অবস্থার কথা শুনে আপ্লুত হয়ে প্রধানমন্ত্রী তাকে জিজ্ঞাসা করেন, কী লাগবে তোমার?

ডালিম জানায়, জীবিকা নির্বাহের জন্য একটি দুধের গাভি এবং একটি ইজিবাইক (মিশুক) হলে সংসারে আর অনটন থাকবে না তার।

ডালিমের এমন আর্জি শুনে প্রধানমন্ত্রী তার জন্য একটি ইজিবাইক (মিশুক), একটি গাভি এবং গাভির পরিচর্যার জন্য নগদ পাঁচ হাজার টাকা বরাদ্দ করেন।

মঙ্গলবার দুপুরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে নেত্রকোনার বারহাট্টা উপজেলার বৃকালিকা গ্রামের মৃত আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে মো. ডালিমকে একটি ইজিবাইক (মিশুক), একটি গাভি এবং গাভির পরিচর্যার জন্য নগদ পাঁচ হাজার টাকা উপহার পৌঁছে দেন নেত্রকোনার জেলা প্রশাসক মঈনউল ইসলাম।

উপহার দেয়ার সময় জেলা প্রশাসক মঈনউল ইসলাম ছাড়াও আরও উপস্থিত ছিলেন- উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. মঈনুল হক কাশেম, বারহাট্টা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফরিদা ইয়াসমিন, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যানরা, সহকারী কমিশনার (ভূমি), বারহাট্টা থানা পুলিশের ওসি, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আজিজুর রহমান ও সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার শাহ আব্দুল কাদির প্রমুখ।

এদিকে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে এমন সব উপহার পেয়ে উচ্ছ্বসিত ও ভাষাহীন মুদি দোকানি ডালিম।

তবে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে এভাবে কথা বলতে পেরেছেন বিষয়টা স্বপ্নের মতো বলে জানান তিনি। প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। ডালিম জানায়, প্রধানমন্ত্রী তার খোঁজ নিয়েছেন এটাই সবচেয়ে বড় পাওয়া।

Related posts