এতিম শিক্ষার্থীদের মধ্যে সাতক্ষীরা সদর আ‘লীগের রাতের খাবার বিতরণ

নিজস্ব প্রতিনিধি : সাতক্ষীরা সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে দুটি হাফিজিয়া ও এতিমখানার শিক্ষার্থীদের মধ্যে রাতের খাবার বিতরণ করা হয়েছে।
শনিবার জাহানাবাজ আবু বকর সিদ্দিক ইসলামিয়া মাদ্রাসায় এবং শিমুল বাড়িয়া হাফিজিয়া ও এতিমখানার শিক্ষার্থীদের মধ্যে রাতের খাবার বিতরণ করা হয়। এসময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ¦ নজরুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন, সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আব্দুর রশিদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মনিরুল হোসেন মাসুম, ফিংড়ী ইউপি চেয়ারম্যান সামছুর রহমান প্রমুখ। এছাড়া সাবেক ছাত্রলীগ নেতা বসির আহমেদ, সাবেক পৌর আওয়ামীলীগের সদস্য সবুর খানসহ মাদ্রাসা সভাপতি-সাধারণসহ শিক্ষার্থীবৃন্দ।

০৮.০৫.২০২১

0 মন্তব্য
0 FacebookTwitterGoogle +Pinterest
সাতক্ষীরায় মা ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ঈদ সামগ্রি ও সেলাই মেশিন বিতরণ

সাতক্ষীরায় মা ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ঈদ সামগ্রি ও হতদরিদ্র পরিবারের মধ্যে সেলাই মেশিন বিতরণ করা হয়েছে।
শনিবার সকালে ব্রহ্মরাজপুর ডিবি ইউনাইডেট মাধ্যমিক বিদ্যালয় চত্বরে এ ঈদ সামগ্রি ও সেলাই মেশিন বিতরণ করা হয়।
মা ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ও ডিবি ইউনাইডেট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোমিনুর রহমান মুকুলের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ¦ নজরুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন, সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আব্দুর রশিদ, বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির বিদ্যুৎসাহী সদস্য আব্দুল আহাদ প্রমুখ।
এসময় ৪০০ অসহায় পরিবারের মধ্যে ঈদ সামগ্রি বিতরণ করা হয় এবং দুটি হত দরিদ্র পরিবারকে সাবলম্বী করার উদ্দেশ্যে দুটি সেলাই মেশিন বিতরণ করা হয়।
উল্লেখ্য: মা ফাউন্ডেশনটি দীর্ঘ ১২ বছর যাবত দুস্থ অসহায় মানুষের পাশে থেকে কর্মমূখি সরঞ্জামসহ বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করে যাচ্ছে।

0 মন্তব্য
0 FacebookTwitterGoogle +Pinterest
পরোকিয়ার কারনেই হত্যা করা হয় আলমগীর হোসেনকে : পুলিশের ব্রিফিং

নিজস্ব প্রতিনিধি : সাতক্ষীরার আলোচিত আলমগীর হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। পরোকিয়ার কারনেই হত্যা করা হয় আলমগীর হোসেনকে।
শনিবার সাতক্ষীরা সদর থানায় অনুষ্ঠিত প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান সদর থানার অফিসার ইনচার্জ দেলোয়ার হোসেন।
এসময় সাতক্ষীরা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সজিব খান, সদর সার্কেল শামসুজ্জামান সামস, সদর থানার ইন্সপেক্টর(তদন্ত) বুরহান উদ্দীন উপস্থিত ছিলেন।
পুলিশ জানায়, স্থানীয়দের তথ্যের ভিত্তিতে ৭ মে ২০২১ ভোরে পুলিশ শহরের বচকরা পশ্চিমপাড়ার একটি পুকুর থেকে একই এলাকার নজরুল ইসলামের পুত্র আলমগীর হোসেনের লাশ উদ্ধার করা হয়। এসময় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য জাকির এবং ই¯্রাফিল নামের দুইজনকে আটক করা হয়। উক্ত ঘটনার সাথে জকিরের সম্পৃক্ততা না থাকায় তাকে ছেড়ে দেওয়ায়। আটক ই¯্রাফিল অকপটে হত্যার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে পুলিশে কাছে।
ই¯্রাফিলের বরাত দিলে পুলিশ জানায়, নিহত আলমগীর ও ই¯্রাফিল দুইজন ঘনিষ্ঠ বন্ধু ছিলো। একই এলাকার আব্দুল জলিলের স্ত্রীর সাথে আলমগীরের প্রেমের সম্পর্ক ছিলো। জলিলের স্ত্রীকে নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার জন্য আলমগীর ই¯্রাফিলের সাথে পরামর্শ করে গত ৫ মে২০২১ বিকালে তাকে (জলিলের স্ত্রীকে) ই¯্রাফিলের এক আতœীয়ের বাসায় রেখে আসে। পরের দিনে তাদে ঢাকা বা অন্য কোথায় যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু আলমগীরের কাছে পর্যাপ্ত টাকা না থাকায় যেতে পারেনি। হত্যাকান্ডের পূর্ব মুহুর্তে ঘটনাস্থলে বসে আলমগীর ও ই¯্রাফিলের মধ্যে কথাকাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে আলমগীর ই¯্রাফিলকে বলে জলিলের স্ত্রীকে “আমি নিতে পারছি না, তুই নিবি।” এতে উত্তেজিত হয়ে ই¯্রাফিলের হাতে থাকা বিদ্যুতের তার দিয়ে আলমগীরের গলায় পেচিয়ে হত্যা করে।
ই¯্রাফিলের স্বীকারোক্তি মোতাবেক নিহত আলমগীরের ব্যবহৃত টর্চ লাইট উদ্ধার হয় এবং মোবাইলটি উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।
এদিকে নিহতের মা সুফিয়া খাতুন ওরফে হাজেরা বাদী হয়ে আ: সাত্তারের পুত্র আহসান, ওয়াজেদ আলীর পুত্র বিল্লাল, নজির উদ্দীনের পুত্র জলিল, ও হাফিজুর রহমানের পুত্র ই¯্রাফিলকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। যার নং- ১৮, ০৭/০৫/২০২১। আসামীদের মধ্যে ই¯্রাফিল আটক রয়েছে। বাকী আসামীদের আটকের জন্য পুলিশি অভিযান চলমান রয়েছে। তবে হত্যাকান্ডের সাথে জলিলের স্ত্রীসহ আর কেউ জড়িত আছে কিনা পরবর্তী তদন্তে জানাযাবে। মামলার তদন্তকারী অফিসার এস আই ওহিদুল ইসলামকে নিযুক্ত করা হয়েছে বলে জানায় পুলিশ।

0 মন্তব্য
0 FacebookTwitterGoogle +Pinterest
৮ বিভাগে আজও ঝড়বৃষ্টির আভাস

দেশের খবর : টানা দাবদাহ শেষে বেশ কয়েকদিন ধরে দেশের বিভিন্ন এলাকায় ঝড়বৃষ্টি হচ্ছে। গতকাল (৭ মে) দেশের অর্ধেকেরও বেশি অঞ্চলে ঝড়বৃষ্টি হয়েছে। এদিন সবচেয়ে বেশি বৃষ্টিপাত হয়েছে কুড়িগ্রামের রাজারহাটে (৭৩ মিলিমিটার)। আজও সেই ঝড়বৃষ্টির ধারা অব্যাহত থাকতে পারে। দেশের ৮ বিভাগেরই কোনো না কোনো এলাকায় ঝড়বৃষ্টি হতে পারে।

শনিবার (৮ মে) সকাল ৯টা পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভাসে এসব তথ্য জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর।

পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, রাজশাহী, রংপুর, ঢাকা, ময়মনসিংহ, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সারাদেশে দিনের তাপমাত্রা সামান্য কমতে পারে এবং রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

লঘুচাপের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন বাংলাদেশ এলাকায় অবস্থান করছে।

দেশের অধিকাংশ অঞ্চলে ঝড়বৃষ্টি হলেও দু-একটি অঞ্চলে এখনও দাবদাহ বয়ে যাচ্ছে। গতকাল দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে রাঙ্গামাটিতে ৩৭ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

0 মন্তব্য
0 FacebookTwitterGoogle +Pinterest
হাসপাতালে তোফায়েল আহমেদ

রাজনীতির খবর : হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, কিংবদন্তী জাতীয় নেতা তোফায়েল আহমেদকে।

শনিবার (৮ মে) হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এদিন সকাল ৮টার দিকে সাবেক ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে তোফায়েল আহমেদের অসুস্থতার কথা জানিয়ে লেখেন, ‘বঙ্গবন্ধুর স্নেহভাজন,সাবেক ছাত্রনেতা, কিংবদন্তি রাজনীতিবিদ জনাব তোফায়েল আহমেদ অসুস্থ হয়ে স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি আছেন। আল্লাহর কাছে তোফায়েল ভাই এর সুস্থতা কামনা করছি।’

জানা যায়, শনিবার (৮ মে) শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তোফায়েল আহমেদকে। সেখানেই এখন তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছেন।

প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা ও সাবেক মন্ত্রী তোফায়েল আহমেদের ১৯৪৩ সালের জন্ম ২২ অক্টোবর। তিনি বাংলাদেশের অন্যতম প্রধান রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের শীর্ষস্থানীয় নেতা। …বর্তমানে তিনি আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পদের একজন সদস্য এবং ২০১৮ সাল পর্যন্ত বাণিজ্য মন্ত্রনালয়ের মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

0 মন্তব্য
0 FacebookTwitterGoogle +Pinterest
আজ রবি ঠাকুরের জন্মদিন

সাহিত্য ও সংস্কৃতি ডেস্ক : আজ ২৫ বৈশাখ। বাংলা সাহিত্যের অনন্য ব্যক্তিত্ব রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৬০তম জন্মবার্ষিকী। ১২৬৮ বঙ্গাব্দের এই দিনে কলকাতার জোড়াসাঁকোর ঠাকুর পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন কালজয়ী এই কবি।

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বিশ্বসাহিত্যের সর্বকালের শ্রেষ্ঠ প্রতিভাদের একজন। বাংলা সাহিত্য ও সংস্কৃতির বিকাশে যার অবদান অসামান্য। তার হাত ধরেই বাংলা সাহিত্য পায় নতুন রূপ। ভাষা, সাহিত্য, সংস্কৃতি ও মননশীলতা দিয়ে বিশ্ব অঙ্গনে বিরল সম্মান আর্জন করেন তিনি।

বাল্যকালে প্রথাগত বিদ্যালয়-শিক্ষা তিনি গ্রহণ করেননি; গৃহশিক্ষক রেখে বাড়িতেই তার শিক্ষার ব্যবস্থা করা হয়েছিল। আট বছর বয়সে তিনি কবিতা লেখা শুরু করেন। ১৮৭৪ সালে তত্ত্ববোধিনী পত্রিকা-এ তার ‘অভিলাষ’ কবিতাটি প্রকাশিত হয়। এটিই ছিল তার প্রথম প্রকাশিত রচনা।

১৮৭৮ সালে মাত্র সতেরো বছর বয়সে রবীন্দ্রনাথ প্রথমবার ইংল্যান্ডে যান। ১৮৮৩ সালে মৃণালিনী দেবীর সঙ্গে তার বিবাহ হয়। ১৮৯০ সাল থেকে রবীন্দ্রনাথ পূর্ববঙ্গের শিলাইদহের জমিদারি এস্টেটে বসবাস শুরু করেন। ১৯০১ সালে তিনি পশ্চিমবঙ্গের শান্তিনিকেতনে ব্রহ্মচর্যাশ্রম প্রতিষ্ঠা করেন এবং সেখানেই পাকাপাকিভাবে বসবাস শুরু করেন। ১৯০২ সালে তার পত্নীবিয়োগ হয়।

১৯০৫ সালে তিনি বঙ্গভঙ্গ-বিরোধী আন্দোলনে জড়িয়ে পড়েন। ১৯১৫ সালে ব্রিটিশ সরকার তাকে নাইট উপাধিতে ভূষিত করে। কিন্তু ১৯১৯ সালে জালিয়ানওয়ালাবাগ হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে তিনি সেই উপাধি ত্যাগ করেন।

১৯২১ সালে গ্রামোন্নয়নের জন্য তিনি শ্রীনিকেতন নামে একটি সংস্থা প্রতিষ্ঠা করেন। ১৯২৩ সালে আনুষ্ঠানিকভাবে বিশ্বভারতী প্রতিষ্ঠিত হয়। দীর্ঘজীবনে তিনি বহুবার বিদেশ ভ্রমণ করেন এবং সমগ্র বিশ্বে বিশ্বভ্রাতৃত্বের বাণী প্রচার করেন। ১৯৪১ সালে দীর্ঘ রোগভোগের পর কলকাতার পৈত্রিক বাসভবনেই তার মৃত্যু হয়।

রবীন্দ্রনাথের কাব্যসাহিত্যের বৈশিষ্ট্য ভাবগভীরতা, গীতিধর্মিতা চিত্ররূপময়তা, অধ্যাত্মচেতনা, ঐতিহ্যপ্রীতি, প্রকৃতিপ্রেম, মানবপ্রেম, স্বদেশপ্রেম, বিশ্বপ্রেম, রোম্যান্টিক সৌন্দর্যচেতনা, ভাব, ভাষা, ছন্দ ও আঙ্গিকের বৈচিত্র্য, বাস্তবচেতনা ও প্রগতিচেতনা। রবীন্দ্রনাথের গদ্যভাষাও কাব্যিক।

ভারতের ধ্রুপদি ও লৌকিক সংস্কৃতি এবং পাশ্চাত্য বিজ্ঞানচেতনা ও শিল্পদর্শন তার রচনায় গভীর প্রভাব বিস্তার করেছিল। কথাসাহিত্য ও প্রবন্ধের মাধ্যমে তিনি সমাজ, রাজনীতি ও রাষ্ট্রনীতি সম্পর্কে নিজ মতামত প্রকাশ করেছিলেন। সমাজকল্যাণের উপায় হিসেবে তিনি গ্রামোন্নয়ন ও গ্রামের দরিদ্র জনসাধারণকে শিক্ষিত করে তোলার পক্ষে মতপ্রকাশ করেন।

পাশাপাশি সামাজিক ভেদাভেদ, অস্পৃশ্যতা, ধর্মীয় গোঁড়ামি ও ধর্মান্ধতার বিরুদ্ধেও তিনি তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছিলেন- রবীন্দ্রনাথের দর্শনচেতনায় ঈশ্বরের মূল হিসেবে মানব সংসারকেই নির্দিষ্ট করা হয়েছে; রবীন্দ্রনাথ দেববিগ্রহের পরিবর্তে কর্মী অর্থাৎ মানুষ ঈশ্বরের পূজার কথা বলেছিলেন। সংগীত ও নৃত্যকে তিনি শিক্ষার অপরিহার্য অঙ্গ মনে করতেন।

রবীন্দ্রনাথের গান তার অন্যতম শ্রেষ্ঠ কীর্তি। তার রচিত ‘আমার সোনার বাংলা’ ও ‘জনগণমন-অধিনায়ক জয় হে’ গানদুটি যথাক্রমে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ ও ভারতের জাতীয় সংগীত। এছাড়া শ্রীলঙ্কার জাতীয় সঙ্গীতের কথাও তার গানের অনুবাদ।

0 মন্তব্য
0 FacebookTwitterGoogle +Pinterest
কঙ্গনা করোনায় আক্রান্ত

বিনোদন সংবাদ : প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত।
হিমাচলে নিজের বাড়িতে যাবেন বলে গতকাল শুক্রবার কোভিড পরীক্ষা করিয়েছিলেন। পরের দিন সকালে পরীক্ষার ফলাফল পজিটিভ আসে।
করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর নিজেই ইনস্টাগ্রামে জানিয়েছেন অভিনেত্রী।

0 মন্তব্য
0 FacebookTwitterGoogle +Pinterest
দিনে ৪ হাজার মৃত্যুর রেকর্ড ছাড়িয়ে গেলো ভারত

বিদেশের খবর : মহামারি করোনাভাইরাসে একদিনে চার হাজার মৃত্যুর ভয়াবহ মাইলফলকও ছুঁয়ে ফেললো ভারত। গত শুক্রবার দেশটিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে অন্তত ৪ হাজার ১৮৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। সেখানে এখন পর্যন্ত একদিনে এটাই সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড।

ওয়ার্ল্ডোমিটারের হিসাব অনুসারে, করোনায় একদিনে চার হাজারের বেশি মৃত্যু দেখা তৃতীয় দেশ ভারত। এর আগে কেবল যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রাজিলে একদিনে এত বেশি মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন।

ওয়েবসাইটটির হিসাবে, গত ১২ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ৪ হাজার ৪৯০ জন মারা গেছেন। বিশ্বে এটিই এখন পর্যন্ত একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড।

ভারতে মাইলফলক শুধু প্রাণহানিতেই নয়, হয়েছে আক্রান্তের হিসাবেও। শুক্রবার টানা তিনদিন চার লাখের বেশি নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে সেখানে।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার করোনা ডেটাবেজ অনুসারে, শুক্রবার ভারতে নতুন করে ৪ লাখ ১ হাজার ৫২২ জন করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছেন।

সংবাদমাধ্যমটি জানিয়েছে, করোনা মহামারি শুরুর দিকে এক বছরে ভারতে যত মানুষ আক্রান্ত না হয়েছে, তারচেয়েও বেশি আক্রান্ত হয়েছে দ্বিতীয় ঢেউয়ের ৮২ দিনে। গত ১৪ ফেব্রুয়ারি থেকে দেশটিতে ১ কোটি ৯ লাখ ৬৮ হাজার ৩৯ জন করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছেন, যেখানে গত বছরের ৩০ জানুয়ারি থেকে এ বছরের ১৩ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ১ কোটি ৯ লাখ ১৬ হাজার ৪৮১ জন।

যদিও মহামারির দ্বিতীয় ঢেউ শুরুর নির্দিষ্ট কোনো দিন চিহ্নিত করা যায় না, তবে ভারতে গত ১৪ ফেব্রুয়ারি থেকে সাপ্তাহিক আক্রান্তের হার ক্রমাগত বাড়তে থাকায় ওই দিন থেকেই দ্বিতীয় ঢেউয়ের সূচনা বলে ধরা হচ্ছে।

দেশটিতে মহামারির দ্বিতীয় ঢেউয়ে ৮২ হাজারের বেশি মানুষ করোনায় মারা গেছেন, যা এ পর্যন্ত মোট মৃত্যুর অর্ধেকেরও বেশি। সরকারি হিসাবে সেখানে এখন পর্যন্ত করোনায় ২ লাখ ৩৮ হাজার ১৯৭ জন মারা গেছেন।

তবে ভারতজুড়ে করোনায় মৃত্যুর প্রকৃত সংখ্যা এরচেয়েও অনেক বেশি বলে মত বিশেষজ্ঞদের। কারণ, সেখানে কেবল হাসপাতালে মারা যাওয়া ব্যক্তিদেরই গণনা করা হচ্ছে। বাড়িতে মারা যাওয়া ব্যক্তিদের কোনো হিসাব রাখা হয়নি।

0 মন্তব্য
0 FacebookTwitterGoogle +Pinterest