সর্বশেষ সংবাদ-
সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে হেনস্থা ও আটকের প্রতিবাদে সাতক্ষীরায় মানববন্ধনআবারও নারী কেলেংকারীর অভিযোগ! বাগেরহাটের ডিসি বদলিআদালতে সাংবাদিক রোজিনা, ৫ দিনের রিমান্ড চায় পুলিশভারতে করোনায় একদিনে ৪৩২৯ জনের মৃত্যুর নতুন রেকর্ডসাংবাদিক রোজিনাকে নির্যাতন : স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ব্রিফিং বয়কটের ডাকপুলিশের ৪ ডিআইজি অতিরিক্ত আইজিপি হলেনকলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়ার পরিকল্পনাসাতক্ষীরায় কোয়ারেন্টাইনে থাকা ভারত ফেরতদের খাবার দিল জেলা পরিষদবাস-ট্রেন-লঞ্চ আরো কিছুদিন বন্ধ থাকুক : স্বাস্থ্যমন্ত্রীদেশের মানুষের মাসে মাথাপিছু আয় বেড়ে সাড়ে ১৫ হাজার টাকা

3
কলারোয়া প্রতিনিধি: কলারোয়া পৌর সদরসহ উপজেলার ১২টি ইউনিয়ন হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সর্ববৃহৎ ধর্মীয় উৎসব শারদীয়া দুর্গা পূজাকে ঘিরে উপজেলার ৪০টি পূজা মণ্ডপে ব্যস্ত সময় পার করছে প্রতিমা শিল্পীরা। আগামী ৭ই অক্টোবর থেকে মহা ৬ষ্ঠী’র মধ্যে দিয়ে শুরু হচ্ছে শারদীয় দুর্গা পূজা উৎসব। এ কারনে  দ্রুততার সাথে চলছে প্রতিমা তৈরির কাজ। ভাস্বরদের নিপূন হাতের ছোঁয়ায় দিনে পর দিন নতুন রুপ পাচ্ছে প্রতিমা। আগামী ৬ অক্টোবর দুপুর ২টা ২১ মিনিটে পঞ্চমী তিথিতে দুর্গা বোধন ও শুভ পঞ্চমী পূজার মধ্যদিয়ে দুর্গতীনাশিণী দেবী দুর্গাপূজার শুভসূচনা ঘটবে। সরজমিনে কলারোয়া পৌরসদর সহ উপজেলার কয়েকটি ইউনিয়নের পূজা মণ্ডপ ঘুরে দেখা গেছে, প্রতিটি মণ্ডপেই প্রতিমা শিল্পীরা দেবী দুর্গা ঠাকুর তৈরি ও মন্দির সাজানো কাজে ব্যস্ত সময় পার করছে। এলাকার উল্লেখযোগ্য মণ্ডপগুলোর মধ্যে রয়েছে কলারোয়া পৌর সদরের তুলশীডাঙ্গা ঘোষ পাড়া মণ্ডপ, ঝিকরা হরিতলা সার্বজনীন পূজা মন্ডপ, পাল পাড়া পূজা মণ্ডপ, তুলশীডাঙ্গা কালী মণ্ডপ, কয়লা সাবজনীন পুজা মণ্ডপ, দেয়াড়া ঘোষ পাড়া পূজা মন্ডপ, বামনখালী পূজা মণ্ডপসহ উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নে কয়েকটি করে পূজা মণ্ডপ আছে। তবে এখনো উপজেলা প্রশাসন ও কলারোয়া পুলিশ প্রশাসন ঝুকিপূর্ণ মণ্ডপের তালিকা প্রকাশ করেনি। কলারোয়া উপজেলা পূজা উৎযাপন কমিটির সভাপতি বাবু মনোরঞ্জন সাহা বলেন, ধর্ম যার যার উৎসব সবার। তিনি আরো বলেন বিগত বছরে ন্যায় এবারও শান্তি পূর্ণ পরিবেশে পূজা পালিত হবে তিনি আশা ব্যাক্ত করেন। তিনি আরো বলেন, অতীতে কোন সময় কলারোয়া উপজেলায় অপ্রীতিকর কোন ঘটনা ঘটেনি। প্রতি বছরই কলারোয়ায় উৎসহ উদ্দীপনার মধ্যে দিয়ে শার্রদীয় দূর্গা পূজা উৎযাপিত হবে।

0 মন্তব্য
0 FacebookTwitterGoogle +Pinterest

picture-kaliganj-satkhira-25-sep-3
কালিগঞ্জ ব্যুরো: প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার ৬৯তম জন্মদিন উদযাপনের লক্ষ্যে কালিগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার সকাল ১০ টায় দলীয় কার্যালয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার আলহাজ্জ্ব শেখ ওয়াহেদুজ্জামানের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি জিএম মাহাতাব উদ্দীন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক খান আসাদুর রহমান, আওয়ামী লীগ নেতা ও কালিগঞ্জ মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ডেপুটি কমান্ডার আব্দুল হাকিম, উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী জেবুন্নাহার জেবু, উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ও আওয়ামী লীগ নেতা ডা. মিলন কুমার ঘোষ, কুশলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী কাউফিল অরা সজল, কৃষ্ণনগর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মোস্তফা কবিরুজ্জামান মন্টু, চাম্পাফুল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক গাইন, দক্ষিণ শ্রীপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি গোবিন্দ মন্ডল, মৌতলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি দুলাল চন্দ্র ঘোষ, মথুরেশপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আনছার আলী, নলতা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল হোসেন পাড়, উপজেলা কৃষক লীগের সভাপতি অধিবাস অধিকারী, সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক, জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি জাহিদ হাসান, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি নুরুজ্জামান জামু, উপজেলা তরুণ লীগের সভাপতি শেখ শাহজালাল, সাধারণ সম্পাদক গাজী আব্দুস সবুর, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি গৌতম কুমার লস্কার, বিষ্ণুপুর ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক শাহআলম ঢালী প্রমুখ। আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার ৬৯তম জন্মদিন উপলক্ষে কেক কাটা, আনন্দ র‌্যালি, দোয়া অনুষ্ঠানের পাশাপাশি আওয়ামী তরুণলীগের ১৬তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

0 মন্তব্য
0 FacebookTwitterGoogle +Pinterest

2
পাইকগাছা প্রতিনিধি: পাইকগাছায় কপোতাক্ষ নদের ভাঙ্গন এলাকা পরিদর্শনকালে খুলনা জেলা পরিষদ প্রশাসক শেখ হারুনুর রশিদ ভাঙ্গন রক্ষার্থে পরিষদের পক্ষ থেকে দু’লাখ টাকা প্রদানের ঘোষণা করেন। সড়ক ও জনপদ বিভাগ এবং পানি উন্নয়ন বোর্ডের রশি টানাটানি বন্ধ করে ভাঙ্গনরোধে আগড়ঘাটা বাজার, খুলনা-পাইকগাছা সড়ক রক্ষার জন্যে যৌথ প্রকল্প গ্রহণ করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন। রোববার দুপুরে ভাঙ্গন এলাকা পরিদর্শন শেষে আগড়ঘাটা বাজার বিনোদ বিহারী স্পোটিং ক্লাবের সভাপতি আলহাজ্ব নূরুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন, সড়ক ও জনপদ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আবুল কালাম আজাদ, জেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুজ্জামান জামাল, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ রশীদুজ্জামান, পাউবো শাখা প্রকৌশলী শহীদুল্লাহ মজুমদার। বক্তব্য রাখেন, কপিলমুনি ইউপি চেয়ারম্যান কওছার আলী জোয়াদ্দার, জামিল খান, যুবলীগ সভাপতি এস,এম শামছুর রহমান সহ ইউপি সদস্যবৃন্দ।

0 মন্তব্য
0 FacebookTwitterGoogle +Pinterest

1
নিজস্ব প্রতিবেদক: ‘‘পরীক্ষার্থীদের নিয়ে পরীক্ষা নয়, পরীক্ষা পদ্ধতিতে সহনশীলতা চাই” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে নতুন পদ্ধতি বাতিল করে পূর্বের সৃজনশীল পদ্ধতিতে পরীক্ষার দাবিতে সাতক্ষীরায় মানববন্ধন কর্মসূচী ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সামনে ঘন্টাব্যাপী এ মানববন্ধন কর্মসূচীর আয়োজন করে শহরের বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা। মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, শিক্ষার্থী উম্মে হাবিবা জাহী, পিয়াল, অনামি, ইমরোজ রাতিম, রিজভি, সাদী, রুহান, নওশীন, অভিভাবক নাসরিন সুলতানা লিনা প্রমুখ। শিক্ষার্থীরা এ সময় সাতক্ষীরা-আশাশুনি সড়ক অবরোধ করে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করে। এ সময় বক্তরা, পরীক্ষার্থীদের নিয়ে পরীক্ষা নয়, পরীক্ষা পদ্ধতিতে সহনশীলতা চেয়ে শিক্ষা মনন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্ত বাতিল দাবী করে ২০১৭ সালের পরিবর্তে ২০১৮ সালে ৬০ মার্কের স্থলে ৭০ মার্কের সৃজনশীল পদ্ধতি কার্যকর করার জোর দাবী জানান। এসময় মানবন্ধন কর্মসূচীতে অংশ নেন, সাতক্ষীরা সরকারি কলেজ, সরকারি মহিলা কলেজ, সাতক্ষীরা সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় ও বালিকা বিদ্যালয়সহ শহরের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা।

0 মন্তব্য
0 FacebookTwitterGoogle +Pinterest

_91371253_24-09-16-bdnationalcricketteam_mirpurstadium-2ডেস্ক রিপোর্ট: মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে দিবা-রাত্রির ম্যাচে আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে মাঠে নামছে বাংলাদেশ। এ ম্যাচটির মাধ্যমেই প্রায় দশ মাসের বেশি সময় বিরতির পর কোন আন্তর্জাতিক ওয়ানডে টুর্নামেন্ট খেলার সুযোগ পেলো বাংলাদেশ।
দলে রয়েছে নতুন বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশ আর বোলিং অ্যাকশন নিয়ে নিষেধাজ্ঞা কাটার পর দলে ফিরেছেন পেসার তাসকিন আহমেদ।
চলতি বছর আফগানিস্তান এ পর্যন্ত ২৩টি ম্যাচ খেলার সুযোগ পেয়েছে যদিও তার অধিকাংশই আইসিসির সহযোগী দলগুলোর বিরুদ্ধে।

আফগানিস্তানের সাথে সিরিজ বাংলাদেশের জন্য এখন কতটা গুরুত্বপূর্ণ?
এমন প্রশ্নের জবাবে ক্রিকইনফোর বাংলাদেশ প্রতিনিধি মোহাম্মদ ইসম বলেন, সামনে ইংল্যান্ডের সাথে সিরিজ ছাড়াও ডিসেম্বরে নিউজিল্যান্ড যাবে বাংলাদেশ দল। সেটি বিবেচনা করলে আফগানিস্তানের সাথে সিরিজটি একটি দারুণ সুযোগ বাংলাদেশের জন্য। “তবে সামনে ইংল্যান্ড সিরিজের আগে আফগানিস্তানের সাথে ম্যাচ কাজে লাগবে বাংলাদেশের জন্য”। তিনি বলেন গত নবেম্বরে জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে সর্বশেষ ওয়ানডেতে ৩-০তে জিতেছিলো বাংলাদেশ।
তার পর ওয়ার্ল্ড টি-টুয়েন্টি ও এশিয়া কাপ টি-টুয়েন্টি খেলার সুযোগ হয়েছিলো বাংলাদেশের জন্য।
তারপর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে খেলার সুযোগ হয়নি বাংলাদেশের জন্য।
মোহাম্মদ ইসমের মতে আফগানিস্তান ভালো দল এবং বাংলাদেশের চেয়ে খুব বেশি পিছিয়ে নেই তারা।
আফগানিস্তান দলটিতে বেশ ভালো কয়েকজন খেলোয়াড় আছে এবং নতুন কিছু খেলোয়াড়ও উঠে এসেছে বলে জানান তিনি।
বাংলাদেশ দলের অবস্থা জানতে চাইলে তিনি বলেন দলের প্রায় সবাই ফর্মে আছে। তবে তাসকিন ফিরে এলেও মুস্তাফিজ না থাকার গ্যাপটা থেকেই যায়।
নতুন ডাক পাওয়া মোসাদ্দেকও এতদিন ভালো খেলছিলো বিভিন্ন পর্যায়ের ক্রিকেটে।
তাছাড়া এবার সিরিজে বাংলাদেশের সাথে থাকছে কোর্টনি ওয়ালশ যা দলের আত্মবিশ্বাস বাড়াবে বলেন মন্তব্য করেন তিনি।

0 মন্তব্য
0 FacebookTwitterGoogle +Pinterest

photo-1474781335রম্য ডেস্ক: অনেকে প্রেম করতে না পারার জন্য ব্যাপক আফসোস করেন। কিন্তু আপনি জানেন কি, প্রেম না করার মাঝেও আছে বেশ কিছু সুফল? ভাবছেন, কী সেগুলো? চলুন দেখে আসি।

সুবিধাগুলো
বারবার ফোনে টাকা রিচার্জ করার প্রয়োজন হয় না। একদিন টাকা রিচার্জ করলে অনেক দিন চলে যায়।
‘পাড়ায় গেলে ঠ্যাং গুঁড়া করে দেব’ ধরনের হুমকি শুনতে হয় না প্রেমিকার বড় ভাই কিংবা জাঁদরেল বাপ কর্তৃক!
সারা রাত জেগে ফোনে কথা বলে নিজের শরীরের বারোটা বাজানো লাগে না। ফলে পর্যাপ্ত ঘুমিয়ে আপনি আপনার স্বাস্থ্য ঠিক রাখতে পারবেন।
মন যেহেতু এদিক-ওদিক ছুটবে না, তাই মনটাকে পড়ালেখার দিকে ধাবিত করে আপনি ভালো ছাত্রের তালিকায় নিজেকে যুক্ত করতে পারবেন।
ভ্যালেন্টাইনস ডে কিংবা বিশেষ দিনগুলাতে কারো জন্য গিফট কেনার জন্য ছোটাছুটি করতে হবে না। ফলে আর্থিকভাবেও ক্ষয়ক্ষতির সম্মুখীন হতে হবে না আপনাকে!
রাস্তাঘাটে যেদিক খুশি সেদিক তাকাতে পারবেন। অন্য মেয়ের দিকে কেন তাকালেন—এ অভিযোগ এনে কেউ আপনার গলা চেপে ধরবে না।
ফোনে একবার চার্জ দিলে তা সারা দিন চলে যাবে। সারাক্ষণ ফোনের সঙ্গে লেজের মতো চার্জার একটা ঝুলিয়ে রেখে দিতে হবে না।
একটু পরপর, কী করো? কী খাইছ? কই গেছ? ইত্যাদি লুতুপুতু টাইপের কথা বলার অভ্যাস করতে হবে না আপনাকে! যা কি-না আসলেই খুব বিরক্তিকর!
মাস শেষে আপনার পকেট খালি হওয়ার কোনো রিস্ক থাকবে না! ফলে টাকার জন্য কখনো বন্ধু-বান্ধবদের কাছে হাত পাততে হবে না।
‘প্রেমেরই নাম বেদনা’ কিংবা ‘পৃথিবীতে প্রেম বলে কিছু নেই’ এই টাইপের স্যাড মার্কা গান শুনে আপনাকে চোখের পানি ফেলতে হবে না!
এলাকার মুরব্বি আর চাচা-খালুদের চোখে সহজেই নিজেকে ভদ্র ছেলে হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে পারবেন। মেয়ে নিয়ে ঘোরাঘুরির ‘অপবাদ’ থাকবে না তাই!
সর্বশেষ, প্রেম না করার কী কী সুবিধা আছে এ বিষয়ে পত্র-পত্রিকায় লিখে নিজের নাম ফোটাতে পারার পাশাপাশি এটা নিয়ে বই লিখেও ব্যাপক খ্যাতি অর্জন করতে পারেন।

0 মন্তব্য
0 FacebookTwitterGoogle +Pinterest
আলোচিত সাংসদ রিফাত আমিনের বহুলালোচিত পুত্র রুমন ৩ দিনের রিমান্ডে

unnamedডেস্ক রিপোর্ট: পৃথক দুটি চাঁদাবাজি মামলায় সংরক্ষিত নারী আসনের এমপি রিফাত আমিন পুত্র রুমনের ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত। রোববার দুপুরে সাতক্ষীরা সদর আমলি আদালতের বিচারক হাবিবুল্লাহ মাহমুদ একটি চাঁদাবাজির মামলায় ২ দিন জেলগেটে ও যুবলীগ নেতা উজ্জলের দায়েরকৃত মামলায় ১ দিন পুলিশ হেফাজতে  রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
গত ১৮ সেপ্টেম্বর দুপুরে চাঁদাবাজির দুটি পৃথক মামলায় সাতক্ষীরারার বহুল আলোচিত সংরক্ষিত মহিলা এমপি পুত্র রাশেদ সারোয়ার রুমনকে শহরের চৌরঙ্গী মোড়ের একটি ভাড়া বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এ সময় তার কাছ থেকে নগদ ৫০ হাজার টাকা ও একটি মোবাইল উদ্ধার করা হয়। গ্রেপ্তারের পর দুটি মামলা ৫ দিন করে মোট ১০ দিনের রিমান্ড করে পুলিশ। সে আবেদনের ভিত্তিতে রোববার ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে আদালত।
উল্লেখ্য, গত ১১ সেপ্টেম্বর রাতে যুবলীগ নেতা উজ্বলসহ চারজনকে মারপিট করে সংবাদ শিরোনাম হন রুমন। ওই রাতেই রুমন সাতক্ষীরার ভোমরায় নিজের গাড়ি দুর্ঘটনায় পড়ে অজ্ঞাত স্থানে চলে যান। তাকে নিয়ে আবারও শুরু  হয়ে যায় হই চই।
পরদিন দুপুরে খোঁজ মিললে রুমনের। দুর্ঘটনা কবলিত গাড়িটি ফেলে রেখে  তিনি রাতে এক নারীসহ শহরের মাগুরার বউ বাজারের ধারে বাঁশতলার সোনা চোরাচালানি মিলন পালের বাগান বাড়িতে আড্ডা দেন। সকালে এ খবর জানাজানি হতেই গ্রামবাসী বাড়ি ঘিরে গনপিটুনি দেয় তাকে।
এরপর ১৩ সেপ্টম্ব^র ঈদের দিন রুমন তার মা মহিলা এমপি রিফাত আমিনকে নিয়ে মাগুরার বউ বাজারস্থ মিলন পালের বাড়িতে যান। এ সময় তার সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে মিলন পালের বাড়ির তালা ভেঙ্গে ভিতরে ঢুকে রুমনের ফেলে রাখা অস্ত্র উদ্ধার করেন এবং সেখান থেকে স¦র্ণালংকারসহ ৫০ লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট করেন। এছাড়া এখান থেকে আড়াইমাস আগে তার মায়ের ব্যবহৃত জাতীয় সংসদের স্টিকারযুক্ত গাড়িসহ তিন তরুণিকে নিয়ে শ্যামনগরের একটি রিসোর্টে ধরা পড়েন রুমন। এ ঘটনায় তিনি জেলও খাটেন।

0 মন্তব্য
0 FacebookTwitterGoogle +Pinterest

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ছবিটি দেখুন। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি নত মাথায় বসে আছেন। বেজায় চিন্তিত। আর বিপরীত দিকে বসা সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংসহ সরকারি ও বেসরকারি পর্যায়ের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিত্ব। কী জানতে চাইছেন তাঁরা। বা নরেন্দ্র মোদিরই এমন অবস্থা কেন?
দি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানিয়েছে, ছবিটি প্রকাশিত হওয়ার পর হৈ চৈ শুরু হয়ে গেছে। বিশেষ করে সামাজিক মাধ্যম টুইটারে নিজেদের মতো করে ছবির ‘ক্যাপশন’ দিচ্ছেন মানুষ।
এর মধ্যে একজন লিখেছেন, আপনি যখন বোর্ড অব ডিরেক্টরের মুখোমুখি। বিক্রি নিয়ে বড় বড় টার্গেটের কথা বলেছিলেন। কিন্তু টার্গেট পুরো করতে পারেননি।
অন্য এক রসিক ব্যক্তি লিখেছেন, ‘যখন পরিবার থেকে বলা হয়, বিয়ে করছ কবে?’
একজন লিখেছেন, ২০১৪ সালের আগে পাকিস্তান নিয়ে টুইটগুলোর (মোদির) ব্যাখ্যা দিন।
অন্য একজন লিখেছেন, পারিবারিক কোনো অনুষ্ঠানে দূরসম্পর্কের স্বজনরা জিজ্ঞাসা করছে, কী করছ আজকাল।
একজন লিখেছেন, ‘দুই বছর হয়ে গেল। আর কোনো স্কিম নেই?’
ছবিটি আসলে কিসের? আসলেই কি নরেন্দ্র মোদি জবাবদিহির টেবিলে বসেছেন? না। ছবিটি আংশিক প্রকাশ করা হয়েছে। এটি একটি বইয়ের প্রকাশনা উৎসব। গতকাল শুক্রবার ভারতের উপরাষ্ট্রপতি হামিদ আনসারীর লেখা বই ‘সিটিজেন এবং সোসাইটি’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করা হয়। আর তা করেন খোদ রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়।
ছবিতে সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংসহ অন্যরা আসলে বসে আছেন দর্শকসারিতে। বিপরীত পাশে আলোচকদের সারিতে বসে আছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। খেয়াল করে দেখলেই বোঝা যাবে মোদির পাশে আছে আরো চেয়ার।
ছবিটি তোলা হয়েছে এমন সময়, যখন কোনো আলোচক বইটি নিয়ে আলোচনা করছিলেন। আর ভারতের সাবেক ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রীসহ অন্যরা তা মনোযোগ দিয়ে শুনছেন।

0 মন্তব্য
0 FacebookTwitterGoogle +Pinterest